নেত্রকোনায় ‘অজ্ঞাত রোগ’, মারা যাচ্ছে গরু-ছাগল-কুকুর-বিড়াল

খালিয়াজুরী (নেত্রোকাণা) প্রতিনিধি
২৬ মার্চ ২০২০ ২২:০৪ | আপডেট: ২৭ মার্চ ২০২০ ০১:১৪
অজ্ঞাত রোগে খালিয়াজুরীতে মারা গেছে গবাদী পশুসহ কুকুর-বিড়াল

দেশে করোনাভাইরাসে মধ্যেই ‘অজ্ঞাত রোগে’ নেত্রকোনার খালিয়াজুরী উপজেলায় মারা গেছে গবাদি পশুসহ কুকুর-বিড়াল। এলাকাবাসী প্রথমে বিষয়টিকে স্বাভাবিক মৃত্যু বলে ধরে নিলেও একাধিক পশু দ্রুত মারা যাওয়ায় বিষয়টিকে ‘অজ্ঞাত রোগ’ হিসেবে দেখছেন পশু চিকিৎসক ও বিশেষজ্ঞরা।

গত ২৪ ঘণ্টায় লিয়াজুরী উপজেলায় ছয়টি গরু-ছাগলসহ ২০টি কুকুর-বিড়াল মারা গেছে। আর গত দুই দিনে খালিয়াজুরী সদর, লক্ষ্মীপুর, কাদিরপুর, আয়াতপুর, রসুলপুরসহ বিভিন্ন স্থানে গৃহপালিত পশুসহ প্রায় ৩০-৪০টি পশু মারা গেছে।

খালিয়াজুরী গ্রামের বাসিন্দা মো. এনামুল হক নয়ন জানান, বেশ কিছু দিন ধরে গরু-বাছুরের শরীরে এক ধরনের চর্মরোগে দেখা যাচ্ছে। গরু-বাছুর মারা যাচ্ছে। মৃত গরুর মাংস খেয়ে কুকুরগুলো মারা গেছে। আরও মারা যেতে পারে।

খালিয়াজুরী সদর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও জেলা পরিষদ সদস্য গোলাম আবু ইছহাক জানান, গত চার-পাঁচ দিনে প্রায় ২০-২৫টি কুকুর অজানা রোগে মারা গেছে। ফলে এলাকায় দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়েছে। নিজে উদ্যোগী হয়ে এলাকার কিছু যুবককে সঙ্গে নিয়ে কিছু মৃত কুকুর মাটিচাপা দিয়েছেন তারা। করোনাভাইরাস আতঙ্কের পাশাপাশি এ ঘটনায় আরও বেশি আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে এলাকাবাসী। 

খালিয়াজুরী উপজেলা ভেটেরিনারি সার্জন জাহাঙ্গীর আলম জানান, তিনি গরু-ছাগলসহ কুকুর-বিড়ালের মৃত্যুর খবর পেয়েছেন। সরেজমিনে পরিদর্শনের পরই এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ বিষয়ে উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মো. ফয়জুর রহমান বলেন, ‘আমি এ ঘটনাটি প্রথম শুনলাম। এটি কোনো ভাইরাসের আক্রমণে হয়ে থাকতে পারে। বিষয়টি আমরা সরেজমিনে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।’

খালিয়াজুরী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এএইচএম আরিফুল ইসলাম বলেন, ‘এ বিষয়ে জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তাকে জানানো হয়েছে। কী কারণে পশুগুলো মারা যাচ্ছে তা দ্রুত পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে জানাতে বলা হয়েছে।’