করোনার প্রতিষেধক বিক্রি, ডিলারকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা

চট্টগ্রাম ব্যুরো
৩০ মার্চ ২০২০ ১৮:১২ | আপডেট: ৩০ মার্চ ২০২০ ১৯:৫৮
করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক বিক্রি নিয়ে প্রতারণায় আটক মনছুর আলী। ছবি : চট্টগ্রাম ব্যুরো

সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক বিক্রির প্রচারণা চালিয়ে প্রতারণার অভিযোগে মনছুর আলী নামে এক ব্যক্তিকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

আজ সোমবার চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার চৌধুরীহাট ইন্টার্ন শপিং সেন্টারের পাশে জালিয়া পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ভেষজ ওষুধ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ইনডেক্সের ডিলার মনসুর তুলশি পাতার কাশির সিরাপকে করোনার প্রতিষেধক বলে বিক্রি করছিলেন। প্রতি ফাইল ১৫০ টাকা হলেও টানা ১২০ দিন বা চার মাস খেতে হবে বলে গ্রাহকদের সঙ্গে প্রতারণা করছিলেন তিনি।

জানা গেছে, মনসুর আলী নিজের ফেসবুক আইডিতে ‘বাসুডেক্স’ ও ‘থার্মোকেয়ার’ সিরাপের ছবি ব্যবহার করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের গবেষকদের বরাত দিয়ে লিখেন, ‘ভেষজ ওষুধ করোনা প্রতিরোধে ব্যবহার করতে বলেছেন। বেশি উদ্বিগ্নদের জন্য করোনা প্রতিরোধক ও প্রতিষেধক পাওয়া যাচ্ছে।’

একটি মোবাইল নম্বর দিয়ে তার সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলা হয়। বিষয়টি হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. রুহুল আমীনের নজরে এলে তিনি ফোন করে ওষুধ আছে কিনা জানতে চাইলে, আছে বলে জানান মনসুর। এরপর দোকানে গিয়ে ওষুধ চাইলে কাশির সিরাপ ধরিয়ে দেন তিনি।

ইউএনও মো. রুহুল আমাদের সময়কে বলেন, ‘আজ আমরা ছদ্মবেশে ওষুধ কিনতে যাই। তিনি প্রতি ফাইল ১৫০ টাকায় ১২০ দিন সেবনের পরামর্শ দিয়ে দুই বোতল ওষুধ দেন। পরে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে প্রতারণার কথা স্বীকার করেন মনসুর। করোনাভাইরাসের ওষুধের নামে প্রতারণার দায়ে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে তাকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করি। বর্তমান পরিস্থিতির কারণে গ্রেপ্তার না করে মুচলেকা নিয়ে স্থানীয় চেয়ারম্যানের কাছে সোপর্দ করেছি।’