কেন খুনিদের ক্ষমা করলেন ছেলেরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
২৩ মে ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ২৩ মে ২০২০ ০২:২৯
সৌদি আরবের সাংবাদিক জামাল খাশোগি

সৌদি আরবের সাংবাদিক জামাল খাশোগির ছেলেরা বলেছেন, তারা তাদের বাবার খুনিদেও ক্ষমা করে দিয়েছেন। গতকাল শুক্রবার তারা এ ঘোষণা দেন। কিন্তু কেন তারা ক্ষমা করছেন খুনিদের? কোনো কোনো গণমাধ্যমে বলা হচ্ছে, এ ক্ষমা করে দেওয়ার পেছন মোটা অঙ্কের আর্থিক লেনদেন জড়িত।

জামালের ছেলে সালাহ খাশোগি টুইটারে লিখেছেন, ‘আমরা শহীদ জামাল খাশোগির ছেলেরা ঘোষণা করছি, যারা আমাদের বাবাকে হত্যা করেছেন, তাদের আমরা ক্ষমা করে দিয়েছি।’ সালাহ সৌদি আরবেই থাকেন। দ্য গার্ডিয়ান বলছে, তার কাছ থেকে আসা ক্ষমার এ ঘোষণার আইনগত পরিণতি কী হবে, তা তাৎক্ষণিকভাবে স্পষ্ট নয়।

সাংবাদিক জামাল খাশোগি একসময় সৌদির রাজপরিবারের ঘনিষ্ঠ ছিলেন। পরে তিনি সৌদির রাজপরিবারের কড়া সমালোচক হয়ে ওঠেন। যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী ওয়াশিংটন পোস্ট পত্রিকার কলামিস্ট খাশোগিকে ২০১৮ সালের ২ অক্টোবর তুরস্কের ইস্তানবুুলে সৌদির কনস্যুলেটের ভেতরে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়। হত্যার পর তার লাশ কেটে টুকরো টুকরো করে গায়েব করে দেওয়া হয়। জামাল খাশোগির হত্যাকা- বিশ্বজুড়ে প্রচ- আলোড়ন সৃষ্টি করে।

এ হত্যাকা-ের জেরে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়ে সৌদির রাজপরিবার, বিশেষ করে যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। এ হত্যাকা- তার নির্দেশেই সংঘটিত হয় বলে অভিযোগ ওঠে। এমনকি যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দারাও তেমন ইঙ্গিত দেন। তুরস্ক জানায়, সৌদি আরব থেকে পাঠানো দেশটির ১৫ জন এজেন্ট এ হত্যাকা-ে জড়িত। প্রবল চাপের মুখে সৌদি আরব খাশোগি হত্যার বিচার শুরু করার ঘোষণা দেয়। হত্যার অভিযোগে তারা ১১ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে।

গত বছরের ডিসেম্বরে দেশটির সরকারি আইনজীবী জানান, ১১ আসামির মধ্যে ৫ জনকে মৃত্যুদ- দিয়েছেন দেশটির আদালত। তিনজনকে দেওয়া হয়েছে ২৪ বছরের কারাদ-। আর বাকিরা খালাস পেয়েছেন। খাশোগি হত্যায় সৌদির বিচারপ্রক্রিয়া নিয়ে শুরু থেকেই বহির্বিশ্বে সন্দেহ সৃষ্টি হয়।