গহিন বনে রতœভা-ার

৭ জুলাই ২০২০ ০০:০০
আপডেট: ৬ জুলাই ২০২০ ২২:৫৪

মিয়ানমারে বনঘেরা মন্দিরের শহর বিশ্ব ঐতিহ্যের অংশে নেই পর্যটকদের আনাগোনা। বাগানগুলো পড়ে রয়েছে ফাঁকা। কিন্তু এর মধ্যেই বেড়েছে লুটেরাদের আনাগোনা। আর ৫০ বর্গকিলোমিটারের এই এলাকাটি পাহারা দিতে রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছেন নিরাপত্তা প্রহরীরা। গত মাস অর্থাৎ জুনের শুরুর দিকে পবিত্র স্থানজুড়ে প্রায় ১২ বার ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ডাকাতরা বিভিন্ন মন্দির লুট করে তামার জিনিস, মুদ্রা, প্রাচীন মুদ্রা, জেড গয়নাসহ বিভিন্ন মূল্যবান জিনিস নিয়ে যায়। এ নিয়ে পুলিশ লেফটেন্যান্ট কর্নেল সেন উইন বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, ‘আমাদের সুরক্ষা বাহিনী দিনরাত টহল দিচ্ছে। বিষয়টি এখনো আমাদের নিয়ন্ত্রণে আছে। এটা এক চ্যালেঞ্জের।’ অপর এক পুলিশ সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ‘অঞ্চলটি এত বড় হওয়ায় টহল দেওয়া সহজ নয়। এ অঞ্চলে অসংখ্য বিষাক্ত সাপ রয়েছে, সর্বদা সেই সতর্কও থাকতে হয়।’ ষএএফপি