অস্ট্রেলিয়ায় অনিশ্চিত বিশ্বকাপ

ক্রীড়া ডেস্ক
১০ জুলাই ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৯ জুলাই ২০২০ ২৩:০৫

করোনার কারণে দ্বিতীয় দফায় অস্ট্রেলিয়ায় শুরু হয়েছে লকডাউন। যার জেরে দেশটির দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর মেলবোর্নকে ৬ সপ্তাহের জন্য লকডাউন করে দেওয়া হয়েছে। বুধবার মধ্যরাত থেকেই কার্যকর হয়েছে নতুন বিধিনিষেধ।

করোনার এ ঢেউয়ের অর্থ হলো, অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে এ বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজন আর কোনোভাবেই হয়তো সম্ভব নয়। কারণ এই মেলবোর্নেই বিশ্বকাপের অধিকাংশ ম্যাচ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা; কিন্তু নতুন করে লকডাউন ঘোষণা এবং সংক্রমণ বৃদ্ধির কারণে সেখানে বিশ্বকাপের ম্যাচ আয়োজন করা স্বপ্নেও কল্পনা সম্ভব নয়।

অক্টোবর-নভেম্বরেই বিশ্বকাপ আয়োজনের সূচি তৈরি করা রয়েছে। আইসিসি ‘পরিস্থিতির ওপর নজর রাখছি’ বলে বলে এখন পর্যন্ত বিশ্বকাপ নিয়ে আনুষ্ঠানিক কোনো সিদ্ধান্ত জানায়নি। তবে এরই মধ্যে যখন অস্ট্রেলিয়ায় নতুন করে করোনা সংক্রমণ বেড়ে চলছে, তখন এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাতিল কিংবা স্থগিতের ঘোষণা দেওয়া ছাড়া আর কোনো উপায় খোলা থাকবে না আইসিসির সামনে। চলতি সপ্তাহেই আসতে পারে এই ঘোষণা।

চলতি বছর যে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই, তা অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ডের মনোভাবেই স্পষ্ট। কারণ তারা দেশের ক্রিকেটারদের বিশ্বকাপের পরিবর্তে আইপিএল খেলার জন্য মানসিক প্রস্তুতি নিতে বলেছে বলে সূত্র মারফত জানা গিয়েছে। যদিও করোনা ভাইরাসের আবহে আইপিএল আয়োজন করার ব্যাপারে ততটা নিশ্চিত নয় বিসিসিআই। করোনা ভাইরাসের জেরে যেখানেই আইপিএল হোক, সেখানেই ক্রিকেটারদের টুর্নামেন্ট খেলার জন্য পাঠাতে রাজি হয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। সেপ্টেম্বরে ইংল্যান্ড সফর শেষে স্টিভ স্মিথরা আইপিএল খেলতে পারে বলে জানানো হয়েছে।

অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ড (সিএ) এ বছর যে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজন সম্ভব নয়, তা অনেক আগেই আকারে-ইঙ্গিতে জানিয়ে দিচ্ছিল। দেশটির ক্রিকেট বোর্ড আগেই জানিয়েছিল, এ পরিস্থিতিতে বিশ্বকাপ আয়োজনের ঝামেলা অস্ট্রেলিয়া সরকার নিতে চায় না।

এর পরও আনুষ্ঠানিকভাবে বিশ্বকাপ বাতিলের কথা ঘোষণা করতে গিয়ে আইসিসি অনেক বিলম্ব করে ফেলছে। আইসিসি চেয়েছিল, করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হলে শেষ চেষ্টাটা করে দেখবে। কারণ এর পেছনে অনেক বড় আর্থিক বিষয়াদি জড়িত।

তবে আইসিসির বিশ্বকাপ নিয়ে কোনো সিদ্ধান্ত ঘোষণা না করার কারণে, এর পেছনে ষড়যন্ত্র আছে বলে মনে করছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড বিসিসিআই। তাদের ধারণা, ভারতীয় বোর্ড বিশ্বকাপের জায়গায় আইপিএল আয়োজনের যে পরিকল্পনা করছে, তা বানচাল করতেই বিশ্বকাপ নিয়ে সিদ্ধান্তটা ঝুলিয়ে রেখেছে আইসিসি।

তবে এবার আর কোনো সন্দেহ থাকল না যে, বিশ্বকাপ আয়োজন করতে না পারা নিয়ে। অস্ট্রেলিয়ায় করোনার দ্বিতীয় ঢেউ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপটাকে পুরোপুরিই অনিশ্চিত করে দিল।

ভারতীয় মিডিয়া জানাচ্ছে, শীঘ্রই বিশ্বকাপ বাতিলের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করে দিতে পারে আইসিসি। এমন সিদ্ধান্ত ঘোষণার অর্থ আইপিএল আয়োজনে আর কোনো বাধা না থাকা। ভারতের মাটিতে সম্ভব না হলেও, বিসিসিআই বিদেশের মাটিতে আইপিএল আয়োজন করবে। সম্ভাব্য ভেন্যু হিসেবে সংযুক্ত আরব আমিরাত, শ্রীলংকা এবং নিউজিল্যান্ডের নাম সামনে রয়েছে।