চট্টগ্রাম কাস্টমসে রপ্তানি পণ্য নিয়ে ভাগান্তি

চট্টগ্রাম ব্যুরো
১১ জুলাই ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ১০ জুলাই ২০২০ ২৩:৩৫

বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে রপ্তানি ডাটা জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের অ্যাসাইকুডা ওয়ার্ল্ড সিস্টেমে না আসায় ভোগান্তিতে পড়েছেন রপ্তানিকারকরা। চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসে বৃহস্পতিবার বিকাল থেকে গতকাল শুক্রবার বিকাল ৪টা পর্যন্ত সমস্যার সমাধান হয়নি। পরে ম্যানুয়েল পদ্ধতিতে বিল অব এক্সপোর্ট দাখিলের কার্যক্রম শুরু হয়। এতে আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছেন রপ্তানিকারকরা।

বিজিএমই সূত্রে জানা গেছে, নির্দিষ্ট সময়ে রপ্তানি পণ্যের বিল অব এক্সপোর্ট দালিখ করতে না পারলে জাহাজ বন্দর ত্যাগ করার সম্ভাবনা থাকে। এ ছাড়া পণ্যের জন্য নির্ধারিত সময়ে জাহাজ ছাড়তে না পারলে প্রতিদিন ১০ হাজার ডলার ডেমারেজ দিতে হয়। যা রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠানগুলোকে আদায় করতে হবে। ২৪ ঘণ্টার বেশি সময় রপ্তানি পণ্যের কার্যক্রম বন্ধ থাকায় আর্থিক ক্ষতি বাড়বে।

সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের যুগ্ম সম্পাদক কাজী মাহমুদ ইমাম বিলুর বলেন, বৃহস্পতিবার বিকাল থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকের ডাটা আসছে না। তাই রপ্তানি কার্যক্রমে সমস্যা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার বিকাল থেকে ম্যানুয়েল পদ্ধতিতে ডাটা দিয়েছে।

কাস্টম হাউসের কমিশনার মো. ফখরুল আলম বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের রপ্তানি চালানের ডাটা অ্যাসাইকুডা ওয়ার্ল্ড সিস্টেমে স্বয়ংক্রিয়ভাবে আসে। বৃহস্পতিবার বিকাল থেকে না আসায় কার্যক্রমে বিঘœ ঘটে। শুক্রবার ধীরে ধীরে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়েছে।