করোনায় দারিদ্র্য সীমা ও বাল্যবিয়ে বৃদ্ধি পেতে পারে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
১১ জুলাই ২০২০ ২১:০৮ | আপডেট: ১১ জুলাই ২০২০ ২৩:০৮
স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক। পুরোনো ছবি

করোনাভাইরাসের কারণে দারিদ্র্য সীমা বৃদ্ধি পাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। এ ছাড়া করোনা পরিস্থিতি দীর্ঘ হলে বাল্যবিবাহ বৃদ্ধি পেতে পারে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক।

আজ শনিবার বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত ভার্চুয়াল সভায় এমন মন্তব্য করেন জাহিদ মালেক। এ বছর দিবসটির প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করা হয়েছে ‘মহামারি কোভিড-১৯ কে প্রতিরোধ করি, নারী ও কিশোরীর সুস্বাস্থ্যের অধিকার নিশ্চিত করি’।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘কোভিড-১৯-এর কারণে কিছুটা হলেও স্বাস্থ্য সেবাও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। মাঠকর্মীদের চলাফেরা ব্যাহত হচ্ছে। এতে প্রজনন স্বাস্থ্যসেবা ব্যাহত হয়েছে। প্রাতিষ্ঠানিক ডেলিভারি কিছুটা কমেছে এটি উদ্বেগের। লকডাউন থাকা এবং যানবাহন না পাওয়ায় অনেকে আসছেন না। আমরা চাই না একজন মাও সেবার অভাবে মৃত্যুবরণ করুক।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের দেশে সুন্দর স্বাস্থ্য সেবার কারণে মৃত্যুর হার অনেক কম। কোভিড-১৯ কারণে জীবনযাত্রা বিপর্যস্ত হয়েছে। শুধু বাংলাদেশে নয়, সারা বিশ্বে একই অবস্থা। মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তা, ডাক্তার নার্স, যারা ফ্রন্টলাইন ওয়ার্কার হিসেবে কাজ করে যাচ্ছে। তাদের প্রতি আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।’

এ সময় মন্ত্রী বলেন, ‘গোটা বিশ্বে করোনার তাণ্ডব চলছে। এর কোনো ভ্যাক্সিন ও ওষধ এখনো বিজ্ঞানীরা আবিষ্কার করতে সক্ষম হননি। কিন্তু তাই বলে করোনার বাইরেও মানুষের অন্যান্য রোগব্যাধি তো থেমে থাকবে না। কাজেই মহামারি যতই বৃহৎ আকারে থাকুক মানুষের স্বাস্থ্যসেবায় কোনোরকম ঘাটতি রাখা যাবে না।দেশের প্রান্তিক অঞ্চল থেকে শুরু করে শহর, গ্রামে সবখানেই এবং স্বাস্থ্যখাতের সকল স্তরে মানুষের স্বাস্থ্যসেবা সমানভাবে অব্যাহত রাখতে হবে।’