সীমিত পরিসরে উদযাপিত নোবিপ্রবির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী

নোয়াখালী প্রতিনিধি
১৬ জুলাই ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ১৫ জুলাই ২০২০ ২২:৪৭

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী-২০২০ উদযাপন করা হয়েছে। মহামারী করোনা ভাইরাসের (কোভিড-১৯) বর্তমান প্রেক্ষাপটকে বিবেচনায় এনে এ উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে ক্যাম্পাসে সীমিত কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। গতকাল বেলা সাড়ে ১১টায় প্রশাসনিক ভবনের সামনে বেলুন উড়িয়ে কর্মসূচি উদ্বোধন করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. দিদার-উল-আলম। দিনের অন্যান্য সূচিতে ছিল শোভাযাত্রা ও বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ।

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক নিবেদন শেষে সংক্ষিপ্ত বক্তৃতায় উপাচার্য বলেন, ’জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঐকান্তিক চেষ্টায় ২০০১ সালে মহান সংসদে এ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার আইন পাস হয়। এ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠায় বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রয়েছে। তিনি না হলে নোয়াখালীতে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠা হতো না। আমরা তাই প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপনের মধ্য দিয়ে সে অবদান কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করি। এ জন্য বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সীমিত পরিসরে দিনটি উদযাপন করছে। করোনা মহামারীর মতো বৈশ্বিক এ দুর্যোগ যেন অচিরেই কেটে যায় এবং আমরা যেন আগের মতো সবাই মিলে বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়নে কাজ করে যেতে পারি আজকের দিনে আমি এ আশাবাদ ব্যক্ত করি। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর এদিনে আমি বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ও ভৌত অবকাঠামোগত উন্নয়নসহ সর্বাঙ্গীণ কার্যক্রমের উত্তরোত্তর সাফল্য ও সমৃদ্ধি কামনা করি।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন নোবিপ্রবি কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফারুক উদ্দিন, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. মো. আবুল হোসেন, শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. নেওয়াজ মোহাম্মদ বাহাদুর, সাধারণ সম্পাদক মজনুর রহমান, অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মেজবাহ উদ্দিন পলাশ প্রমুখ। এ ছাড়া অনুষ্ঠানে নোবিপ্রবি পরিবারের বিভিন্ন অনুষদের ডিন, ইনস্টিটিউটের পরিচালকবৃন্দ, বিভিন্ন দপ্তরের পরিচালক, বিভিন্ন বিভাগের চেয়ারম্যানবৃন্দ, হলের প্রভোস্টবৃন্দ, শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দ, অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দসহ ছাত্র-শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।