কলেজের নাম পরিবর্তন নিয়ে উত্তপ্ত বরিশালের রাজপথ

আল মামুন বরিশাল
১৬ জুলাই ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ১৬ জুলাই ২০২০ ০০:২৫

সরকারি বরিশাল কলেজের নাম পরিবর্তন করে মহাত্মা অশ্বিনী কুমার দত্তের নামে নামকরণ চায় নগরীর সাংস্কৃতিক ও সুশীল সমাজের একাংশ। অন্যদিকে কলেজের নাম অপরিবর্তিত রাখতে চান কলেজটির সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীসহ আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। এ নিয়ে এখন উত্তপ্ত বরিশালের রাজপথ।

জানা যায়, সম্প্রতি স্থানীয় সুশীল সমাজের একাংশ জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে বরিশাল কলেজের নাম পরিবর্তন করে অশ্বিনী কুমার দত্ত করার প্রস্তাব শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠায়। এই খবর জানাজানি হলে কলেজের সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা

মানববন্ধন করে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি প্রেরণ করে।

গত এক সপ্তাহ ধরে বিষয়টি নিয়ে পক্ষে-বিপক্ষে মানববন্ধন, স্মারকলিপি, সংবাদ সম্মেলন ও সোশ্যাল মিডিয়ায় সীমাবদ্ধ ছিল। হঠাৎ গত মঙ্গলবার গভীর রাতে কলেজের নাম পরিবর্তনের দাবি বাস্তবায়নে ১০১ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা করা হয়। গতকাল বুধবার বেলা ১১টায় নগরীর অশ্বিনী কুমার টাউন হলের সামনে বিক্ষোভের ডাক দেয় সাংস্কৃতিক ও সুশীল সমাজের সমন্বয়ে গঠিত এ কমিটি।

খবর পেয়ে কলেজের নাম অপরিবর্তিত রাখার পক্ষে কলেজের সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা গণস্বাক্ষর সংগ্রহ এবং সমাবেশের পাল্টা কর্মসূচির ডাক দেয় একই সময় এবং একই স্থানে। পক্ষে-বিপক্ষের ডাকা কর্মসূচিতে সকাল থেকেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে বরিশালের রাজপথ।

কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি নুরুল ইসলাম জানান, অশ্বিনী কুমারের নামে সরকারি বরিশাল কলেজের নামকরণের দাবিতে পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী বুধবার ১১টায় অশ্বিনী কুমার হলের সামনে সড়কের পশ্চিম পাশে নারী ও রিকশা শ্রমিকদের নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ করে সাংস্কৃতিক ও সুশীল সমাজের পক্ষে জেলা বাসদসহ কয়েকটি সংগঠন।

ওসি জানান, একই সময় সড়কের পূর্ব পাশে কলেজের নাম অপরিবর্তিত রাখার দাবিতে গণস্বাক্ষর সংগ্রহ এবং সমাবেশ করেন কলেজের সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা।

একই স্থানে দুপক্ষের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচিতে সাময়িক সময়ের জন্য উত্তপ্ত হয়ে ওঠে নগরীর সদর রোডসহ আশপাশের এলাকা। তবে বিপুলসংখ্যক পুলিশ সতর্কাবস্থানে থাকায় কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি বলে জানান ওসি।

অশ্বিনী কুমার দত্তের নামে কলেজের নামকরণ করার দাবিতে সমাবেশে জেলা বাসদ আহ্বায়ক প্রকৌশলী ইমরান হাবিব রুমন বলেন, অশ্বিনী কুমারের বসতভিটায় প্রতিষ্ঠিত সরকারি বরিশাল কলেজের নামকরণ করতে হবে। এ দাবিতে আমাদের আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। আর কলেজের নাম অপরিবর্তিত রাখার দাবিতে গণস্বাক্ষর কর্মসূচি পালনকালে কলেজের সাবেক ভিপি মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি অ্যাডভোকেট একেএম জাহাঙ্গীর বক্তব্যে বলেন, এই কলেজের সঙ্গে আমাদের আবেগ-অস্তিত্ব জড়িত। জেলা প্রশাসক কোনো ধরনের আলোচনা না করে গুটি কয়েকজন লোকের পরামর্শে কলেজের নাম পরিবর্তনের প্রস্তাব পাঠিয়েছেন। এ জন্য সব দায়ভার জেলা প্রশাসকের।

জেলা প্রশাসক এসএম অজিয়র রহমান বলেন, বরিশালের সাংস্কৃতিক এবং সুশীল সমাজের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে কলেজের নামকরণ পরিবর্তনের প্রস্তাব মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। মন্ত্রণালয় শিক্ষা বোর্ডের কাছে মতামত চেয়ে পাঠিয়েছে। চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে মন্ত্রণালয়।

বরিশাল শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান প্রফেসর মো. ইউনুস বলেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয় বোর্ডের মতামত চেয়েছে। বর্তমান পরিস্থিতিতে কলেজের নাম পরিবর্তন করার বিষয়ে কোনো মতামত দেওয়া হবে না বলে তিনি জানান।