ইন্টারনেট-ডিশ সংযোগে ধর্মঘটের সিদ্ধান্ত স্থগিত

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৮ অক্টোবর ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ১৮ অক্টোবর ২০২০ ০০:০৪

সরকারের আশ্বাসে ধর্মঘট স্থগিত করেছেন ইন্টারনেট ও ডিশ সংযোগ প্রদানকারীরা। ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (আইএসপিএবি) এবং ক্যাবল অপারেটর অব বাংলাদেশের (কোয়াব) ভার্চুয়ালি

সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানানো হয়। বিকল্প ব্যবস্থা না করে ঝুলন্ত তার কাটার প্রতিবাদে ইন্টারনেট ডাটা কানেক্টিভিটি এবং ক্যাবল টিভি আজ রবিবার থেকে দিনে ৩ ঘণ্টা করে বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছিল সংগঠন দুটি।

গতকাল শনিবার বিকালে সংগঠন দুটির নেতাদের সঙ্গে কথা বলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এবং তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমদ পলক। আলোচনার পর ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এসে

আইএসপিএবির সভাপতি আবদুল হাকিম বলেন, মন্ত্রী (মোস্তাফা জব্বার) আমাদের আশ্বাস দিয়েছেন- তিনি আমাদের সংকট নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচন করবেন। এখন সে বৈঠকের জন্য দুই-তিন বা চার দিন যতই সময় লাগুক আমরা অপেক্ষা করব। আশা করছি, এ সপ্তাহের মধ্যেই আমরা ফলপ্রসূ সমাধান পাব।

তিনি বলেন, এ বিষয়ে আজ রবিবার সকাল সাড়ে ১০টায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন কার্যালয়ে একটি বৈঠক হবে। মিটিংয়ে কোনো সমাধান না এলে আমরা আগামী শনিবার থেকে ধর্মঘটে যাব।

বৈঠকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা আবু নাছের।

ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, আমি বলেছি- প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আমরা যত দ্রুত পারি সিদ্ধান্ত নেব। এখন তিনি কবে আমাদের সঙ্গে মিটিংয়ে বসেন, সেটি কিন্তু আমি এখনই বলতে পারব না।

তিনি আরও বলেন, করোনাকালে আইএসপিগুলো নিরবচ্ছিন্নভাবে ইন্টারনেট সেবা দিয়েছে। কোয়াব ঘরে ঘরে ডিশ সংযোগ পৌঁছে দিয়েছে। ফলে এদের বিরুদ্ধে বিরূপ আচরণ নয়। মন্ত্রী আরও বলেন, সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে

আমি এটুকু সবাইকে আশ্বস্ত করতে পারি- যৌক্তিক সিদ্ধান্ত না হওয়া পর্যন্ত আর কোনো ক্যাবল কাটা হবে না।

দুই সংগঠনের নেতাদের উদ্দেশে বলেন, আপনারা ধরে নিন প্রাথমিকভাবে আপনাদের বিজয় অর্জন হয়েছে। বিষয়টিতে সরকারের সবাই সচেতন।

প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, আমি প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি বিনিয়োগবিষয়ক উপদেষ্টা ও প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিবের সঙ্গে কথা বলেছি। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়রের সঙ্গেও কথা বলব।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে যুক্ত ছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব আফজাল হোসেন, আইএসপিএবির সাধারণ সম্পাদক ইমদাদুল হক, সহসভাপতি জুনায়েদ আহমেদ, কোয়াবের সভাপতি এসএম আনোয়ার

পারভেজসহ দুই সংগঠনের সদস্য ও নেতারা।