নাম রাখা হলো সেই শিশুটির

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৮ অক্টোবর ২০২০ ০০:৩৩ | আপডেট: ১৮ অক্টোবর ২০২০ ০০:৩৩

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত ঘোষণার পর দাফন করার আগে নড়েচড়ে ওঠা মেয়ে শিশুটি ভালো আছে। তার নামও রেখেছে পরিবার। শিশুটির বাবা ইয়াসিন মোল্লা শনিবার এ তথ্য জানান। পরিবার তার মেয়ের নাম মরিয়ম রেখেছে বলেও তিনি জানান।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (ঢামেক) নিওনেটাল ওয়ার্ডে ভর্তি আছে শিশু মরিয়ম। গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার মালেঙ্গা গ্রামের ইয়াসিন ও শাহিনুর বেগমের দ্বিতীয় সন্তান সে। তাদের প্রথম সন্তানের নাম ইসরাত জাহান।

গত শুক্রবার ভোরে ঢামেকের গাইনি বিভাগে মরিয়মের জন্ম হয়। কিন্তু চিকিৎসকরা জানান, সে মৃত অবস্থায় জন্ম নিয়েছে। এরপর হাসপাতালের আয়া বাচ্চাটিকে প্যাকেট করে বেডের নিচে রেখে দেন এবং কোথাও নিয়ে দাফন করার জন্য বলেন। পরে রায়েরবাজার বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে কবর খোঁড়া যখন প্রায় শেষ পর্যায়ে, তখন কান্নাকাটি শব্দ শুনতে পান মরিয়মের বাবা ইয়াসিন। আশপাশে কোথাও কিছু না পেয়ে পরে পাশে রাখা ব্যাগটির দিকে খেয়াল করেন। সেটি খুলে দেখেন তার মেয়ে নড়াচড়া করছে, কান্নাকাটি করছে। ওই অবস্থায় দ্রুত তিনি মেয়েকে ঢামেকে নিয়ে এসে ভর্তি করান। চিকিৎসকরা মরিয়মকে প্রথমে এনআইসিইউ শিশু বিভাগে ভর্তি নেন।

ঘটনাটি জানার পর মরিয়মের জীবিত হয়ে ওঠার ঘটনাটি ‘মিরাকল’ বলে মন্তব্য করেন ঢামেকের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল একেএম নাসির উদ্দিন। এ সময় তদন্ত শেষে কারও গাফিলতি পাওয়া গেলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।