মাঁখোর মুসলিম বিদ্বেষের নিন্দা ইমরানের, জাকারবার্গকে চিঠি

অনলাইন ডেস্ক
২৬ অক্টোবর ২০২০ ১৩:৩০ | আপডেট: ২৬ অক্টোবর ২০২০ ১৫:০৩
ইমরান খান, মার্ক জাকারবার্গ ও এমানুয়েল মাঁখো। পুরোনো ছবি

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাঁখোর ইসলাম বিদ্বেষের সমালোচনা করেছেন। বিদ্বেষমূলক কার্টুন আঁকার পক্ষে মাঁখো যে সাফাই গাইছেন তাতে মুসলিম বিদ্বেষকে উৎসাহ দেওয়া হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন তিনি। আর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যাতে ইসলাম বিদ্বেষ না ছড়ানো হয় সে জন্য ফেসবুকের সিইও মার্ক জাকারবার্গকে চিঠি দিয়েছেন ইমরান খান।

পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম দ্য ডন অনলাইনের খবরে বলা হয়, গতকাল রোববার ইমরান খান তার টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে একাধিক টুইটে এসব কথা বলেন। গত বুধবার মাঁখোর মুসলিমদের সমালোচনা ও মহানবীকে (সা.) নিয়ে কার্টুন আঁকা বন্ধ না করার পক্ষে তার সমর্থনের কথা তুলে ধরে সমালোচনা করেন ইমরান।  

ফরাসি প্রেসিডেন্ট মুসলিম বিদ্বেষকে উৎসাহ দিচ্ছেন অভিযোগ করে ইমরান খান লেখেন, ‘যারা সহিংসতা চালাচ্ছেন তাদেরকে বাদ দিয়ে মুসলিমদেরকেই দোষারোপ করা হচ্ছে। সহিংসতাকারী মুসলিম, শ্বেতাঙ্গ কিংবা নাজি মতাদর্শেরও হতে পারে। কোনা কিছু না বুঝে মুসলিমদের আক্রমণ করে মাঁখো ইউরোপ ও সারা বিশ্বে বসবাসরত মিলিয়ন মিলিয়ন মুসলিমদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানছেন।’

এদিকে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যাতে মুসলিম বিদ্বেষ না ছড়ায় সেজন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম জায়ান্ট ফেসবুককে চিঠি দিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী। ফেসবুকের সিইও মার্ক জাকারবার্গকে পাঠানো চিঠির কপি দিয়ে টুইট করেছেন ইমরান খান।

জাকারবার্গকে পাঠানো চিঠিতে ইমরান লিখেন, ‘আমি আপনার দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য লিখছি- ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ইসলাম বিদ্বেষ ছড়িয়ে পড়ছে এর ফলে বিশ্বব্যাপী ঘৃণা, চরমপন্থা ও সহিংসতা বৃদ্ধি পাচ্ছে। জার্মানি ও ইউরোপজুড়ে নাৎসীদের ইহুদীবিরোধী সমালোচনামূলক পোস্ট বন্ধ করার পদক্ষেপকে প্রশংসা করছি। মুসলিমদের বিপক্ষেও বিশ্বব্যাপী একই ধরনের অপপ্রচার লক্ষ্য করা যাচ্ছে। ভারতে মুসলিমদের লক্ষ্য করে হত্যার উদ্দেশ্যে সিএএ ও এরআরসির মতো আইন করা হয়েছে। করোনাভাইরাস ছড়ানোর জন্য মুসলিমদের দায়ী করে মুসলিম বিদ্বেষ ছড়ানো হয়েছে। ফ্রান্সে ইসলামকে ও আমাদের প্রিয় নবী (সা.) কে লক্ষ্য করে বিদ্বেষমূলক কার্টুন আঁকার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। আমি আপনাকে হলোকাস্ট বন্ধের মতো ইসলাম বিদ্বেষ বন্ধের জন্য একই পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি।’