উপাচার্যকে রুটিন দায়িত্ব পালন করতে বললেন ‘দুর্নীতিবিরোধী’ শিক্ষকরা

নিজস্ব প্রতিবেদক
২৬ অক্টোবর ২০২০ ১৯:১৪ | আপডেট: ২৬ অক্টোবর ২০২০ ১৯:১৪

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) তদন্ত প্রতিবেদনের পরিপেক্ষিতে উপাচার্য এম আবদুস সোবহানকে শুধুমাত্র রুটিন দায়িত্ব পালনের আহ্বান জানিয়েছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজের ‘দুর্নীতিবিরোধী’ শিক্ষকরা।

আজ সোমবার বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্যের ই-মেইলে একটি চিঠি পাঠিয়ে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আহ্বান জানানো হয়। চিঠিতে অন্য শিক্ষকদের পক্ষে স্বাক্ষর করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক মো. সুলতান-উল-ইসলাম টিপু।

চিঠিতে শিক্ষকরা উল্লেখ করেন, ‘গত ২১ ও ২২ অক্টোবর বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান প্রশাসনের দুর্নীতি, অনিয়ম, স্বজনপ্রীতি, নির্যাতন ও নিয়াগে বাণিজ্য সম্পর্কে এক তদন্ত প্রতিবেদন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর, শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও দুর্নীতি দমন কমিশনে পেশ করেছেন বলে গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদের মাধ্যমে আমরা জানতে পেরেছি। সংবাদপত্রে প্রকাশিত সংবাদে জানা যায় যে, বর্তমান উপাচার্যসহ প্রশাসনের কতিপয় সদস্যের বিরুদ্ধে তারা ২৫টি অভিযোগের প্রমাণ পেয়ে সুনির্দিষ্ট সুপারিশমালা প্রদান করেছেন। এহেন সংবাদে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমাজ, কর্মকর্তা ও কর্মচারী এবং শিক্ষার্থীরা ক্ষুদ্ধ ও মর্মাহত।’

চিঠিতে আরও উল্লেখ করা হয়, ‘সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলো বিবেচনায় নিয়ে আমরা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজের দুর্নীতিবিরোধী শিক্ষকরা আগামী ২৭ অক্টোবর ২০২০ তারিখে অনুষ্ঠিতব্য শিক্ষা পরিষদ সভার আলোচ্যসূচিতে শুধুমাত্র রুটিন একাডেমিক বিষয়গুলো অন্তর্ভুক্ত করার জন্য দাবি জানাচ্ছি। একই সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনার ক্ষেত্রেও আপনাকে শুধুমাত্র রুটিন দায়িত্ব পালনের আহ্বান জানাচ্ছি।’

চিঠি দেওয়ার বিষয়ে অধ্যাপক মো. সুলতান-উল-ইসলাম টিপু গণমাধ্যমকে জানান, আজ অফিস বন্ধ থাকায় ই-মেইলের মাধ্যমে উপাচার্যেকে রুটিন দায়িত্ব পালনের বিষয়ে চিঠি দিয়ে জানানো হয়েছে। কাল অফিসে গিয়ে এই কপি জমা দেওয়া হবে।  

‘দুর্নীতিবিরোধী’ শিক্ষকদের চিঠি পাওয়ার বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার এম এ বারী গণমাধ্যমকে জানান, অফিস বন্ধ থাকায় ই-মেইলে উপাচার্যকে পাঠানো চিঠির বিষয়ে তিনি কিছু জানেন না।