পেঁয়াজের সংকট কাটাতে ৬ মাস আগে প্রস্তুতি নিন

৩০ অক্টোবর ২০২০ ০৩:৪৩
আপডেট: ৩০ অক্টোবর ২০২০ ০৩:৪৩

পেঁয়াজের ‘হঠাৎ সংকট’ কাটাতে কমপক্ষে ছয় মাস আগেই পরিকল্পনা নিতে কৃষি মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করেছে সংসদীয় কমিটি। গতকাল বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত কৃষি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ সুপারিশ করা হয়।
বৈঠকে জানানো হয়, দেশি পেঁয়াজের মৌসুমে কৃষকরা যাতে ন্যায্যমূল্য পায়, সে লক্ষ্যে ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি নিষিদ্ধ না করলেও এলসি বন্ধ রাখা হয়। পেঁয়াজে স্বয়ংসম্পূর্ণ হতে গ্রীষ্মকালে নতুন একটি জাতের পেঁয়াজের পরীক্ষামূলক উৎপাদন করা হচ্ছে, জাতটির ফলন ভালো হলে ভবিষ্যতে দেশব্যপী চাষাবাদের পরিকল্পনা রয়েছে বলে বৈঠকে জানানো হয়। পেঁয়াজের ‘হঠাৎ সংকট’ কাটাতে কমপক্ষে ছয় মাস আগেই পরিকল্পনা নেওয়ার বিষয়ে মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করে সংসদীয় কমিটি।
বৈঠকে ‘ভেজাল বীজে দিশাহারা কৃষক’ শিরোনামে একটি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত সংবাদের পরিপ্রেক্ষিতে কোনো পদক্ষেপ না নেওয়ায় বিএডিসির প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়। প্রকাশিত সংবাদটি খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সুপারিশ করা হয়।
বৈঠকে কালোজিরার বহুবিধ ব্যবহার নিয়ে আলোচনা করা হয়। করোনাকালে কালোজিরার উৎপাদন বৃদ্ধিসহ আরও ভালো ব্যবহার প্রসঙ্গে মন্ত্রণালয়কে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সুপারিশ করে কমিটি।
কমিটির সভাপতি মতিয়া চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত বৈঠকে কমিটির সদস্য কৃষিমন্ত্রী আবদুর রাজ্জাক, মো. মোসলেম উদ্দিন, মো. মামুনুর রশীদ কিরণ, আনোয়ারুল আবেদীন খান, জয়াসেন গুপ্তা, উম্মে কুলসুম স্মৃতি এবং হোসনে আরা বৈঠকে অংশ নেন। এ ছাড়া কৃষি মন্ত্রণালয়ের সচিব, বিভিন্ন দপ্তর সংস্থার প্রধানসহ মন্ত্রণালয় এবং জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।