ডাকাত সন্দেহে গণপিটুনি, নিহত ২

নিজস্ব প্রতিবেদক
২৫ নভেম্বর ২০২০ ১২:৩৫ | আপডেট: ২৫ নভেম্বর ২০২০ ১৪:৪৮

নরসিংদীর শিবপুরে ডাকাত সন্দেহে দুইজনকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয়রা বলছেন, ডাকাতি শেষে পালানোর সময় তাদের গণপিটুনি দেওয়া হয়। এ ছাড়া আহত অবস্থায় এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ।

গতকাল মঙ্গলবার গভীর রাতে উপজেলার মুরগীবের গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর এলাকার আমিনুল ইসলামের ছেলে সোহেল (৩০) ও অজ্ঞাত পরিচয় একজন। আটক ব্যক্তির নাম মানিক মিয়া (২৫)। তার বাড়ি কুলিয়ারচর উপজেলার পশ্চিম আব্দুল্লাহপুর এলাকায়। সোহেলের বিরুদ্ধে হত্যাসহ একাধিক মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার দিবাগত ৩টার দিকে ১০/১৫ জনের একদল ডাকাত শিবপুরের যোশরের সৃষ্টিঘর এলাকার মুরগীবের গ্রামের বোরহান, গোলজার ও কাঞ্জনদের বাড়িতে হানা দেয়। তাদের কয়েক লাখ টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট করে যোশর ইউনিয়নের মুরগীবেড় গ্রাম হয়ে পালানোর চেষ্টা করে তারা। এ সময় গ্রামের পাহারাদারদের সন্দেহ হয়। পরে মোবাইল ফোনে আশপাশের লোকদের খবর দেন তারা। পরে ডাকাত পড়েছে বলে মসজিদের মাইকে ঘোষণা দেয়া হয়। খবর পেয়ে গ্রামবাসী ডাকাতদের ঘেরাও করার চেষ্টা করে।

এ সময় অন্যান্য ডাকাতরা পালিয়ে গেলেও তিনজনকে আটক করে গণপিটুনি দেয় গ্রামবাসী। খবর পয়ে শিবপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে দুইজনের মরদেহ উদ্ধার করে এবং আহত অবস্থায় একজনকে উদ্ধার করে। শিবপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি, তদন্ত) আবুল কালাম বলেন, নিহত সোহেল আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সদস্য। তার বিরুদ্ধে দুটি হত্যা, নারী নির্যাতন ও ডাকাতিসহ পাঁচটি মামলার সন্ধান পাওয়া গেছে।