ধর্ষণ মামলায় নিকাহ রেজিস্ট্রার কারাগারে

আদালত প্রতিবেদক
৪ ডিসেম্বর ২০২০ ১৯:০৮ | আপডেট: ৪ ডিসেম্বর ২০২০ ২১:২৬
প্রতীকী ছবি

ঢাকার ধামরাইয়ে এক গৃহবধূর ধর্ষণের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় ইউসুফ আলী নামে এক নিকাহ রেজিস্ট্রারকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

আজ শুক্রবার এ আসামিকে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ধামরাই থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. একেএম সাইদুজ্জামান আদালতে হাজির করে ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। তবে মামলার সিডি না থাকায় রিমান্ড শুনানি রোববার ঠিক করে ঢাকার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মনিকা খানম আসামিকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, প্রায় এক মাস আগে নিজের বিয়ের কাবিনের অর্থের পরিমাণ এক লাখ থেকে তিন লাখ টাকা বাড়ানোর কথা বলে তাকে কাজী অফিসে ডেকে নেন কাজী ইউসুফ আলী। ওই গৃহবধূ তার অফিসে গেলে কাগজ অফিসে নেই জানিয়ে তাকে পৌর এলাকার ৮ নম্বর দক্ষিণ পাড়ার নিজ ভাড়া বাসায় নিয়ে যান ইউসুফ। এসময় চার তলায় কাজীর ফ্ল্যাটে নিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। তবে ওই সময় বাসায় কেউ ছিল না।

এ ঘটনায় গতকাল বৃহস্পতিবার ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে ধর্ষণের অভিযোগ এনে মামলাটি দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর ৩ ডিসেম্বর বিকেলে উপজেলার ধামরাই পৌরসভার চন্দ্রাইল এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার ইউসুফ আলী (৪৫) ধামরাই পৌর এলাকার নতুন দক্ষিণ পাড়া মহল্লার আমির হোসেনের বাড়ির ভাড়াটিয়া। তিনি নেত্রকোনা জেলার পূর্বধলা থানার হাঁপানিয়া গ্রামের মৃত লাল মাহমুদের ছেলে।