প্রকাশ্যে টিকা নিতে চান ওবামা বুশ ও ক্লিনটন

৫ ডিসেম্বর ২০২০ ১২:১০
আপডেট: ৫ ডিসেম্বর ২০২০ ১২:১০

করোনার টিকা নিয়ে তৈরি দুটি মার্কিন কোম্পানি ফাইজার ও মর্ডানা। এখন নিয়ন্ত্রক সংস্থার অনুমতি পেলেই যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে শুরু হয়ে যাবে টিকাকরণ। কিন্তু এই টিকা নিয়ে অনিশ্চয়তায় দেশটির নাগরিকদের একটা বড় অংশ। তাদের ভয় দূর করতে এবার এগিয়ে এলেন সাবেক তিন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন, জর্জ বুশ এবং বারাক ওবামা। তারা জানিয়েছেন, টিকা যদি নিরাপদ হয়, তাহলে সংবাদমাধ্যমের ক্যামেরার সামনে তা গ্রহণে আপত্তি নেই তাদের। যাতে তাদের দেখে টিকা নিতে উৎসাহী হন দেশবাসী। প্রকাশ্যে টিকাগ্রহণে আগ্রহী দেশটির হবু প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনও।
জানা গেছে, যুক্তরাষ্ট্রে কোভিড প্রতিষেধকের দায়িত্বে রয়েছে দেশটির ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব অ্যালার্জি
অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিসের (এনআইএআইডি) ডিরেক্টর অ্যান্টনি ফাউচি। প্রতিষেধক কতটা নিরাপদ সে বিষয়ে তার কাছ থেকে আশ্বাস পেলেই এগিয়ে যাবেন বলে জানিয়েছেন ওবামা। একটি রেডিও সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘অ্যান্টনি ফাউচি যদি বলেন প্রতিষেধক নিরাপদ তাহলে টিকা আমি নেব। দেশবাসীর ভয় কাটানোর জন্য ক্যামেরার সামনেও এই প্রতিষেধক নিতে আমি প্রস্তুত। প্রয়োজনে টিভি চ্যানেলের ক্যামেরার সামনে টিকা নিতে পারি। ভিডিও রেকর্ডিং করে তা দিতে পারি সংবাদমাধ্যমকে। তাতে অন্তত মানুষ জানতে পারবে যে, আমি এই বিজ্ঞানে বিশ্বাস করি।’
একই রকম কথা বলেছেন বুশের চিফ অব স্টাফ ফ্রেডি ফোর্ডও। তিনি বলেন, প্রতিষেধক যে নিরাপদ, প্রথমে তা প্রমাণ হওয়া দরকার। তাহলে বুশও প্রতিষেধক নেবেন। ক্যামেরার সামনে প্রতিষেধক নিতেও আপত্তি নেই তার।
বিল ক্লিন্টনও প্রতিষেধক নিতে আগ্রহী বলে জানিয়েছেন তার প্রেস সচিব এঞ্জেল উরেনা। সিএনএনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে টিকাগ্রহণে আগ্রহ প্রকাশ করেন হবু প্রেসিডেন্ট বাইডেনও। প্রতিষেধকের কতটা নিরাপদ, তা নিয়ে মানুষকে আশ্বস্ত করা প্রয়োজন বলে জানান তিনি। টিকাগ্রহণে এগিয়ে আসার জন্য তিন পূর্বসূরিকে ধন্যবাদও জানান তিনি। খবর আনন্দবাজারের।