মোস্তাফিজ-সৌম্যে সহজ জয় বাংলাদেশের

  ক্রীড়া প্রতিবেদক

২০ মে ২০১৭, ০০:০০ | আপডেট : ২০ মে ২০১৭, ০০:৫৬ | প্রিন্ট সংস্করণ

ইনজুরি তাকে বাইরে ঠেলে দেয়। দীর্ঘদিন লড়াই করে মাঠে ফেরেন, কিন্তু ছন্দ পাচ্ছিলেন না। অবশেষে চেনা মোস্তাফিজকেই দেখল গতকাল। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে একাই লড়াই করলেও সঙ্গীহীন ছিলেন। গতকাল ৪ উইকেট নিয়ে আয়ারল্যান্ডকে অনেকটা ব্যাকফুটে ঠেলে দেন কাটার মাস্টার। এর পর ব্যাটিংয়ে দ্যুতি ছড়ান সৌম্য সরকার। তাদের সম্মিলিত পারফরম্যান্সে সিরিজের চতুর্থ আর নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে বাংলাদেশ সহজ জয় তুলে নেয়। আয়ারল্যান্ডের ১৮২ রানের লক্ষ্য পেরিয়ে যায় ৮ উইকেট আর ১৩৭ বল হাতে রেখে। সৌম্যের এটি ছিল টানা দ্বিতীয় ফিফটি (৮৭)।
রান তাড়ায় বাংলাদেশকে দারুণ সূচনা এনে দেন দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার। উদ্বোধনী জুটিতে দলীয় স্কোরকার্ডে জমা করেন ১৩.৫ ওভারে ৯৫ রান। ধীরস্থিরভাবেই ব্যাটিং করেন তামিম। কেভিন ও’ব্রায়েনের বলে নেল ও’ব্রায়েনের হাতে ক্যাচ তুলে দেওয়ার আগে তার ব্যাট থেকে আসে ৪৭ রান। তামিমের ৫৪ বলের ইনিংসটি সাজানো ছিল ছয়টি চারে।
এর আগে সবুজ ঘাসের উইকেটে টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং নিতে দুবার ভাবতে হয়নি মাশরাফিকে। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচে একাদশে ছিল একটি পরিবর্তন। মেহেদী হাসান মিরাজের পরিবর্তে সুযোগ পান সানজামুল ইসলাম। ১২৪তম খেলোয়াড় হিসেবে বাংলাদেশের ওয়ানডে দলে অভিষেক হলো বাঁহাতি এ স্পিনিং অলরাউন্ডারের।
সবুজ ঘাসের উইকেটে বল হাতে সফল ছিলেন মোস্তাফিজ, মাশরাফি ও সানজামুল। দ্বিতীয় ওভারের তৃতীয় বলেই বাংলাদেশকে প্রথম ব্রেকথ্রু এনে দেন মোস্তাফিজ। দলীয় স্কোরকার্ডে কোনো রান জমা না হতেই মোস্তাফিজের বলে সাব্বিরের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে সাজঘরে ফেরেন পল স্টিরলিং।
উইকেটে থিতু হওয়ার আগেই উইলিয়াম পোটারফিল্ডকে (২২) আউট করে এড জয়সির সঙ্গে ৩৭ রানের জুটি ভাঙেন মোসাদ্দেক। তৃতীয় ও চতুর্থ উইকেটে বাংলাদেশের বোলারদের বিপক্ষে কিছুটা প্রতিরোধ গড়েছিলেন আইরিশ ব্যাটসম্যানরা। জয়সি-অ্যান্ড্রি বালবিরনি (২৪) ও জয়সি-নেল ও’ব্রায়েন (৫৫) জুটি চেষ্টা করেছিলেন রানের চাকা সচল রাখতে। তবে এই জুটিকে উইকেটে বেশিক্ষণ থিতু হতে দেননি সাকিব, মোস্তাফিজরা।
দলীয় ৬১ রানে সাকিবের শিকার হন বালবিরনি (১২) ও ১১৬ রানে ও’ব্রায়েনকে নিজের দ্বিতীয় শিকার বানান মোস্তাফিজ। এর পর আইরিশ ব্যাটসম্যানদের মেরুদ- ভাঙেন সানজামুল, মোস্তাফিজ। ১১৬ থেকে ১৩৬Ñ দলীয় স্কোরকার্ডে ২০ রান জমা হতেই ৪ উইকেট হারায় আয়ারল্যান্ড। স্বাগতিকরা ১৮১ রানের পুঁজি পেয়েছে অষ্টম উইকেট জুটির কল্যাণে। জর্জ ডকরেল (২৫) ও বেরি ম্যাকরেথি (১২) জুটি দলীয় স্কোরকার্ডে জমা করেন ৩৫ রান।
অভিষিক্ত সানজামুল এদিন ৫ ওভারে ২২ রানে ২ উইকেট শিকার করেন। নিউজিল্যান্ড ম্যাচে নিজের ছায়া হয়ে থাকা মাশরাফিও দারুণ বোলিং করেন। বাংলাদেশের ওয়ানডে দলের অধিনায়ক এদিন ৬.৩ ওভার বোলিং করে ১৮ রানে তুলে নিয়েছেন ২ উইকেট। তবে নজরকাড়া বোলিং করেছেন মোস্তাফিজ। ইনিংসশেষে বাঁহাতি পেসারের বোলিং বিশ্লেষণ ছিল ৯-২-২৩-৪।

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে