নারী সংবাদ

উজ্জ্বলা : একটি মেয়ের গল্প

প্রকাশ | ০৭ অক্টোবর ২০১৭, ০০:০০

ইসমত জেরিন

মেয়েটি বাংলাদেশের। সে স্বপ্ন দেখতে ভালোবাসে। সে চায় তার স্বপ্ন বাস্তবে রূপ পাক। একই সঙ্গে যারা স্বপ্ন দেখে, তাদের স্বপ্ন পূরণে সম্ভাবনার ক্ষেত্র তৈরি করতে। কেবল থেমে থাকা নয়, বরং কিছু করার প্রত্যয়ে এগিয়ে যাওয়া। মেয়েটি তাদের স্বপ্ন পূরণে আত্মবিশ^াসী। এমনই সম্ভাবনার উজ্জ্বল নারীদের আত্মপ্রকাশেরই প্ল্যাটফর্ম উজ্জ্বলা। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে এক নতুন ধরনের প্রতিষ্ঠান। নারী উদ্যোক্তা এবং পেশাজীবীদের সময়োপযোগী করে গড়ে তুলতে চায় উজ্জ্বলা। তারই পরিক্রমায় অনুষ্ঠিত হয়ে গেল ফাউন্ডেশন কোর্স অন গ্রুমিং। গত ২৭, ২৮, ২৯ সেপ্টেম্বর তিন দিনের এ কোর্সে বিষয়ভিত্তিক গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিষয়ের ওপর গ্রুমিং কোর্সটি পরিচালিত হয়।

গ্রুমিং বলতে এখন নিজেকে শুধু সুন্দরভাবে সবার সামনে প্রকাশ করাই বোঝায় না, নিজেকে একদম পরিপূর্ণভাবে গড়ে তুলে সবার সামনে উপস্থাপন করা বোঝায়। একই সঙ্গে আত্মবিশ্বাসী, স্মার্ট, বুদ্ধিদীপ্ত এবং পরিণতভাবে সবার সামনে উপস্থাপন করার মাধ্যমেই যথাযথভাবে কারোর ব্যক্তিত্ব প্রকাশ পায়। ‘উজ্জ্বলা’র গ্রুমিং ক্লাসগুলোয় ঠিক সেসব বিষয় শেখানো হয়, যা একজন মানুষকে শুধু ‘সুন্দর’ কিংবা ‘আকর্ষণীয়’ নয়, একজন ‘পরিপূর্ণ ব্যক্তিত্ব’ হিসেবে গড়ে তুলতে সহায়তা করবে।

আমাদের ব্যক্তিগত এবং কর্মজীবনে ‘পারসোনাল গ্রুমিং’ খুবই দরকারি এবং প্রয়োজনীয়। আমরা যেখানেই যাই না কেন, যে কাজের সঙ্গে জড়িত থাকি না কেন, আমাদের নিজস্ব ব্যক্তিত্ব সবার সামনে সবার আগে প্রকাশিত হয়ে থাকে।

উজ্জ্বলা তার ‘ফাউন্ডেশন কোর্স অন গ্রুমিং’র কোর্সে মোট ছয়টি আলাদা বিষয়ের ওপর কোর্স করানো হয়। যার মধ্যে প্রথম দিন ছিলÑ পারসোনাল বিউটিফিকেশন, মেন্টাল হেলথ অ্যান্ড স্ট্রেস ম্যানেজমেন্ট, দ্বিতীয় দিন পারসোনাল স্টাইলিং এবং বিজনেস ম্যানেজমেন্ট, তৃতীয় দিন ছিল পারসোনালিটি অ্যান্ড বিহেভিয়ার ম্যানেজমেন্ট এবং হেলথ অ্যান্ড নিউট্রিশন।

এসব সেসন পরিচালনা করেন যথাক্রমে আফরোজা পারভিন, বিউটি এক্সপার্ট, কর্ণধার, রেড বিউটি পার্লার এবং স্যালুন, ম্যানেজিং ডিরেক্টর এবং সহ-প্রতিষ্ঠাতা উজ্জ্বলা। মনিরা রহমান (এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর, দ্য ইনোভেটিভ ফর ওয়েলবিং ফাউন্ডেশন) শৈবাল সাহা একজন ক্রাফট ডিজাইনার এবং ফ্যাশন ট্রেন্ড-সেটার। আদিত্য সোম (বিজনেস ম্যানেজমেন্ট) প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান, উজ্জ্বলা।

মনজুন নাহার, গত ২৫ বছর ধরে জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক অর্গানাইজেশনে জেন্ডার, নারী ক্ষমতায়ন, প্রফেশনাল ক্যাপাসিটি ডেভেলপমেন্ট নিয়ে কাজ করছেন। বর্তমানে তিনি একটি গ্লোবাল প্রজেক্টে কাজ করছেন নারী উন্নয়ন নিয়ে। তামান্না চৌধুরী একজন প্রতিষ্ঠিত ক্লিনিক্যাল ডায়েটিশিয়ান এবং নিউট্রিশনিস্ট। গ্রুমিং কর্মশালা শেষে তথ্যপ্রযুক্তি উদ্যোক্তা ফারহানা এ রহমানের উপস্থিতিতে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়। উল্লেখ্য, উজ্জ্বলা নারীদের স্বনির্ভর করে গড়ে তুলতে বিভিন্ন সময়ে নানা বিষয়ের ওপর কর্মশালার আয়োজন করে আসছে।