সেই ভুয়া চিকিৎসককে পুলিশে দিলেন হাইকোর্ট

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১২ ডিসেম্বর ২০১৭, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

পটুয়াখালীর বাউফলে সন্তান প্রসবের সময় নারীর পেটে গজ রেখে সেলাই দেওয়া সেই ভুয়া চিকিৎসক রাজন দাসকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে শাহবাগ থানায় সেপার্দের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। বাউফল থানায় পুলিশের করা একটি মামলায় গতকাল হাইকোর্টে আত্মসমর্পণ করেন রাজন দাস। পরে বিচারপতি সালমা মাসুদ চৌধুরী ও একেএম জহিরুল হকের বেঞ্চ এ আসামিকে পুলিশে সোপর্দের আদেশ দেন। একই সঙ্গে এ ঘটনায় ক্ষতিপূরণের মামলা ও সংশ্লিষ্ট অন্যদের বিষয়ে আদেশের জন্য ১৩ ডিসেম্বর দিন ধার্য করেন।

শুনানিতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল শশাঙ্ক শেখর সরকার ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল জেসমিন সামসাদ। আদালতে পটুয়াখালীর সিভিল সার্জনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী শামসুদ্দিন বাবু। ভুল চিকিৎসার শিকার বরিশালে মাকসুদা বেগমের পক্ষে শুনানি করেন ইমরান এ সিদ্দিক। ক্লিনিকের পরিচালক ও নার্সের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মো. নজরুল ইসলাম। রাজন দাসের পক্ষে ছিলেন নুরুল ইসলাম সুজন। রাজন দাসের আসল নাম অর্জুন চক্রবর্তী। তার চিকিৎসাসংক্রান্ত কোনো লাইসেন্স নেই বলে ইতোমধ্যে আদালতকে জানিয়েছেন পটুয়াখালীর সিভিল সার্জন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে