ডেঙ্গু আক্রান্তকে ক্যানসারের চিকিৎসা

ঢাবি ছাত্রীর মৃত্যুতে সেন্ট্রাল হাসপাতাল ভাঙচুর

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৯ মে ২০১৭, ০০:০০ | আপডেট : ১৯ মে ২০১৭, ০০:২৪ | প্রিন্ট সংস্করণ

ডেঙ্গু নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ছাত্রী আফিয়া জাহান চৈতি। কিন্তু চিকিৎসকরা জানান, তার ক্যানসার হয়েছে। সেই অনুযায়ী তাকে চিকিৎসা দেওয়া হয়। পরে আবার চিকিৎসকরা জানান, আসলে তিনি ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত। ততক্ষণে সব শেষÑ চৈতি চলে যান না ফেরার দেশে।

এদিকে ভুল চিকিৎসার কারণে চৈতির মৃত্যু হয়েছেÑ এই অভিযোগে হাসপাতালে ভাঙচুর করেন তার সহপাঠীরা। গতকাল দুপুরে রাজধানীর গ্রিন রোডের সেন্ট্রাল হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে। চৈতি ঢাবির প্রাণিবিদ্যা বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্রী ছিলেন। তার বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. এ এম আমজাদ আমাদের সময়কে চৈতির মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, ভুল চিকিৎসায় প্রাণিবিদ্যা বিভাগের ওই শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। অভিযুক্ত ডাক্তারকে তাৎক্ষণিক থানায় নিয়ে গেছে পুলিশ।

চৈতির বড় ভাই নাফিউল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, বুধবার সকালে চৈতি ভর্তি হন সেন্ট্রাল হাসপাতালে। পরে বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে সন্ধ্যায় আমাদের জানানো হয়, চৈতির ব্লাড ক্যানসার ধরা পড়েছে। রাত ৪টার দিকে ওর অবস্থা আশঙ্কাজনক হলে আইসিইউতে নেয় কর্তৃপক্ষ। তখন বলা হয়ম ওর ব্লাড ক্যানসারের লাস্ট স্টেপ চলছে। কিন্তু গতকাল দুপুর ১২টার দিকে আমাদের জানানো হয়, চৈতি ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছিল। তিনি বলেন, দুপুরের দিকেই আমার বোন ‘ক্লিনিক্যালি ডেড’ থাকলেও হাসপাতাল থেকে মৃত্যুর খবর জানানো হয় বিকাল ৫টার দিকে।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ইফতেখারুল ইসলাম সজিব আমাদের সময়কে বলেন, ডাক্তাররা চৈতির মৃত্যুর ভিন্ন ভিন্ন কারণ উল্লেখ করছিলেন। তাদের কথার মধ্যেই অসামঞ্জস্যতা ছিল। এই কারণে শিক্ষার্থীদের সন্দেহ হয়েছে, ভুল চিকিৎসার কারণে সে মারা গেছে। এজন্য উত্তেজনা সৃষ্টি হয় এবং বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীরা হাসপাতালে ভাঙচুর করে। পরে পুলিশ ও বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন প্রিন্স পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

এ বিষয়ে প্রিন্স আমাদের সময়কে বলেন, আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন বোন ভুল চিকিৎসায় মারা গেছে। শিক্ষার্থীরা তাৎক্ষণিক ক্ষোভের কারণে হাসপাতালে ভাঙচুর চালিয়েছিল।

পুলিশের ধানম-ি জোনের সহকারী কমিশনার আব্দুল্লাহেল কাফী জানান, গতকাল দুপুরের দিকে ওই ছাত্রী চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে মারা যান। এরপর ভুল চিকিৎসায় সহপাঠীর মৃত্যু হয়েছেÑ অভিযোগে বিশ্ববিদ্যালয়ের বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী হাসপাতালে ঢুকে ভাঙচুর করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. এ এম আমজাদ জানান, মৃত শিক্ষার্থীর পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর পরিবারের পাশে থাকবে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে