দুই শর্তে জামিন

অনুমতি ছাড়া বিদেশ যেতে পারবেন না খালেদা জিয়া

  আদালত প্রতিবেদক

২০ অক্টোবর ২০১৭, ০০:০০ | আপডেট : ২০ অক্টোবর ২০১৭, ০২:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি এবং চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় আত্মসমর্পণ করে জামিন পেয়েছেন। গতকাল পুরান ঢাকার বকশিবাজারের অস্থায়ী আদালতে হাজির হন খালেদা জিয়া।

ঢাকার ৫ নম্বর বিশেষ জজ ড. মো. আখতারুজ্জামান শুনানি শেষে প্রত্যেক মামলায় এক লাখ টাকা বন্ডে এবং আদালতের অনুমতি ছাড়া বিদেশ না যাওয়ার শর্তে তার এ জামিন মঞ্জুর করেন।

এদিকে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় সাবেক এ প্রধানমন্ত্রী আত্মপক্ষ সমর্থনে আদালতে এক ঘণ্টাব্যাপী বক্তব্য দিয়েছেন। বক্তব্যে তিনি মামলাটিতে অন্য আসামিদের বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগ মিথ্যা বানোয়াট বলে অভিহিত করে বিচার বিভাগ ও দেশের চলমান অবস্থাসহ বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন।

এর আগে খালেদা জিয়া আদালতে উপস্থিত হওয়ার আগেই বেলা ১১টায় বিচারক এজলাসে ওঠেন। ওই সময় চ্যারিটেবল মামলায় আসামি জিয়াউল হক মুন্নার এবং মনিরুল ইসলাম খানের পক্ষে রি-কলের সাক্ষী দুদকের উপপরিচালক নুর আহমেদকে জেরা শুরু করতে বলেন বিচারক। ওই সময় খালেদা জিয়ার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া বলেন, ম্যাডাম (খালেদা জিয়া) হাইকোর্ট পর্যন্ত এসেছেন যদি একটু সময় দেন। তখন বিচারক বলেন, তিনি এলেই আমরা এই মামলায় সাক্ষ্য গ্রহণ বন্ধ করে দেব। ততক্ষণ পর্যন্ত সাক্ষ্য গ্রহণ চলছে। এরপর আসামি জিয়াউল হক মুন্নার পক্ষে আইনজীবী আমিনুল ইসলাম জেরা শুরু করেন। বেলা সোয়া ১১টা পর্যন্ত জেরার পর খালেদা জিয়া আদালতে প্রবেশ করায় জেরা স্থগিত হয়। ওই সময় আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া খালেদা জিয়ার বসার অনুমতি চাইলে বিচারক অনুমতি দেন। এরপর আইনজীবী সাবেক স্পিকার জমির উদ্দিন সরকার খালেদা জিয়ার দুইটি মামলায় জামিন আবেদনের ওপর শুনানি করেন। শুনানিতে তিনি বলেন, গত ধার্য তারিখে বিজ্ঞ আদালত জামিন বাতিল করেছিলেন। তিনি (খালেদা জিয়া) তখন বিদেশে চিকিৎসাধীন ছিলেন। তিনি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। গতকাল বিদেশ থেকে এসে আজই আদালতে হাজির হয়েছেন। আমরা তার জামিন চাইছি।

ওই সময় বিচারক দুদকের প্রসিকিউটরের বক্তব্য জানতে চাইলে প্রসিকিউটর মোশারফ হোসেন কাজল বলেন, আজকে মামলাটি যুক্তিতর্কের শুনানি আছে। আগে যুক্তিতর্কের শুনানি হোক, পরে জামিন আবেদনের শুনানি হোক। তখন বিচারক বলেন, আগে জামিন আবেদনের নিষ্পত্তি হোক। আপনার জামিনের ব্যাপারে আপত্তি আছে কি। ওই সময় পিপি কাজল বলেন, অবশ্যই আপত্তি আছে। যে শর্তে এর আগে তাকে জামিন দিয়েছিলেন তিনি সে শর্ত পালন করেননি। ৮ মাস ১০ দিন সময় নষ্ট করেছেন। ৩৩ বার সময় নিয়েছেন। এই মামলায় উচ্চ আদালত আপনাকে ক্ষমতা দিয়েছে, তিনি জামিনের শর্ত ভঙ্গ করলে আপনি জামিন বাতিল করতে পারবেন।

জামিন আবেদনের শুনানি শেষে বিচারক খালেদা জিয়াকে প্রত্যেক মামলায় ১ লাখ টাকা বন্ডে দুই জন জামিনদারের জিম্মায় জামিন মঞ্জুর করেন। একই সঙ্গে তিনি আদালতের অনুমতি ছাড়া বিদেশে যেতে পারবেন না কলেও জামিনের শর্তে উল্লেখ করেন। অপর দুই আসামির জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করেন।

এরপর খালেদা জিয়ার পক্ষে আইনজীবী জমির উদ্দিন সরকার মামলাটি যুক্তিতর্ক থেকে উত্তোলন করে পুনরায় আত্মপক্ষ শুনানিতে আনার আবেদন করেন। ওই সময় দুদকের পক্ষে প্রসিকিউটর কাজল ওই আবেদনের বিরোধিতা করে বলেন, এই আবেদন কেন আগে দেওয়া হয়নি। কেন লুকোচুরি করে এখন দেওয়া হলো। এরপর এ নিয়ে বিচারকও প্রশ্ন উত্থাপন করলে জামির উদ্দিন সরকার বলেন, ম্যাডামের জামিন বাতিল হয়েছিল। তার জামিন না হওয়া পর্যন্ত তার পক্ষে আমরা অন্য কোনো আবেদন আইন সঙ্গতভাবে আদালতে জমা দিতে পারি না। এরপর এ নিয়ে দুদকের প্রসিকিউটর কাজল এবং খালেদা জিয়ার আইনজীবী জমির উদ্দিন সরকার এবং জয়নাল আবেদীনের সঙ্গে বাগ্বিত-ার পর বিচারক খালেদা জিয়ার আবেদন মঞ্জুর করে বলেন, আপনি (খালেদা জিয়া) এখন আত্মপক্ষ সমর্থনে বক্তব্য দেবেন। দুপুর ১২টা ১৫ মিনিটে খালেদা জিয়া আত্মপক্ষ সমর্থনে বক্তব্য রাখেন। খালেদা জিয়া এজলাস ছেড়ে আসার পর আবার চ্যারিটেবল মামলায় পুনরায় সাক্ষ্য শুরু হয়। আসামি জিয়াউল হক মুন্নার পক্ষে আইনজীবী আমিনুল ইসলাম পুনরায় সাক্ষী নুর আহমেদকে জেরা শুরু করে বেলা ২টা পর্যন্ত জেরা করার পর তা শেষ হয়। এর পর বিচারক আগামী ২৬ অক্টোবর অরফানেজ মামলায় খালেদা জিয়ার অসমাপ্ত আত্মপক্ষ সমর্থনের বক্তব্যের জন্য এবং চ্যারিটেবল মামলায় আসামি মনিরুল ইসলাম খানের পক্ষে সাক্ষী নুর আহমদকে জেরার দিন ধার্য করেন।

এর আগে গত ১২ অক্টোবর ওই দুই মামলায় খালেদা জিয়াসহ ২ আসামির জামিন বাতিল করেন আদালত। মামলাটিতে দীর্ঘদিন সাবেক এ প্রধানমন্ত্রী আদালতে উপস্থিত হয়ে আত্মপক্ষ শুনানির বক্তব্য না দিয়ে মামলার কার্যক্রমকে বিলম্বিত করার অভিযোগে পরোয়ানা জারি করেন বিচারক।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে