বাড়ছে বড় কোম্পানির শেয়ারের দাম

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, ০০:০০ | আপডেট : ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, ০০:৩১ | প্রিন্ট সংস্করণ

বড় মূলধনী কোম্পানির দাম বাড়ার মধ্য দিয়ে পুঁজিবাজারে চাঙ্গাভাব অব্যাহত রয়েছে। সূচক বাড়ার পাশাপাশি লেনদেন ও মূলধন বেড়েছে। টানা ৯ কার্যদিবস পর আবারও হাজার কোটি টাকার ওপরে আর্থিক লেনদেন হয়েছে ঢাকা শেয়ারবাজারে। গতকাল ১ হাজার ৯৩ কোটি ৫০ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। আর টানা ৬ কার্যদিবসের উত্থানে সূচক বেড়েছে মোট ২৩৬ পয়েন্ট।

বাজার বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, গতকাল সোমবার ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স ১২ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৫৫৯ পয়েন্টে। ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩২৯টি কোম্পানির মধ্যে ১১৯টি বা ৩৬ দশমিক ১৭ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। অন্যদিকে দাম কমেছে ১৭৪টি বা ৫২ দশমিক ৮৯ শতাংশ কোম্পানির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৬টি বা ১০.৯৪ শতাংশ কোম্পানির। তবে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ারের মূল্য কমলেও বড় মূলধনী কোম্পানির শেয়ারের মূল্য বৃদ্ধিতে সূচক বেড়েছে। বড় মূলধনী কোম্পানির শেয়ারের মূল্য বেড়েছে দশমিক ৮০ শতাংশ। বিশেষ করে গ্রামীণফোনের শেয়ারের মূল্য বেড়েছে ২ দশমিক ৭ শতাংশ।

গতকাল টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের শেয়ার। এদিন কোম্পানির ৪৬ কোটি ৯১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে থাকা এ্যাপোলো ইস্পাতের ৪২ কোটি ৪৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ৩৯ কোটি ২৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে লংকাবাংলা ফাইন্যান্স।

লেনদেনে এর পর পরই অবস্থান করছে, প্যাসিফিক ডেনিমস, ডরিন পাওয়ার জেনারেশন, আরএকে সিরামিকস, আরএসআরএম স্টিল, সেন্ট্রাল ফার্মাসিউটিক্যালস, কেয়া কসমেটিকস ও এসিআই ফরমুলেশনস।

এদিকে দাম বৃদ্ধির শীর্ষে থাকা কোম্পানিগুলো হলো, তিতাস গ্যাস, পিডিএল, ফুয়াং সিরামিক, ডরিন পাওয়ার, ডেফোডিল কম্পিউটার, এইচএফএল ও প্রাইম ইন্স্যুরেন্স। দাম হ্রাসের শীর্ষে থাকা কোম্পানিগুলো হলো, এনসিসি ব্যাংক মিউচুয়াল ফান্ড, আরএসআরএম স্টিল, আল আরাফা ব্যাংক, ফ্যামেলি টেক্স, আইসিবি ২য় এনআরবি মিউচুয়াল ফান্ড, আইএফসি, ইসলামী ফাইন্যান্স, সাইফ পাওয়ার এবং এনএইচএফআইএল।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে, টানা উত্থানের মধ্যে গত ২৩ জানুয়ারি ডিএসইর লেনদেন প্রায় ২ হাজার ২০০ কোটি টাকায় উন্নীত হয়। যা গত ৬ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ পরিমাণ। তারপরই ধারাবাহিকভাবে কমতে কমতে ৩১ জানুয়ারি লেনদেন দাঁড়ায় ৫৭৬ কোটি টাকায়। পরে আবারও টানা বাড়তে শুরু করে। গতকাল সোমবার ডিএসইতে ১ হাজার ৯৩ কোটি ৫০ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে।

এদিকে অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সিএসসিএক্স মূল্যসূচক ২৪ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০ হাজার ৪২১ পয়েন্টে। বাজারটিতে ৬৮ কোটি ৫৫ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। লেনদেন হওয়া ২৬৩টি ইস্যুর মধ্যে দাম বেড়েছে ১১৪টির, কমেছে ১২৫টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৪টির।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে