ধর্ষিতা রোহিঙ্গা নারীদের বিশেষ কাউন্সেলিং করবে বাংলাদেশ

  শাহজাহান আকন্দ শুভ

১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, ০০:০০ | আপডেট : ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, ০০:৩৯ | প্রিন্ট সংস্করণ

মিয়ানমার সেনাবাহিনী ও পুলিশের ধর্ষণের শিকার রোহিঙ্গা নারীদের স্বাভাবিক জীবনে ফেরাতে বিশেষ কাউন্সেলিং করাবে বাংলাদেশ। এ কাজে বাংলাদেশকে সহযোগিতা করার আগ্রহ প্রকাশ করেছে ইন্টারন্যাশনাল অর্গানাইজেশন ফর মাইগ্রেশন (আইওএম)। আন্তর্জাতিক এই সংস্থাটির বাংলাদেশ মিশনের প্রধান শরৎ দাসের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল এ উপলক্ষে গতকাল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব ড. কামাল উদ্দিন আহমেদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন।

সাক্ষাতে তারা সচিবকে বলেন, মিয়ানমারে এখনো রোহিঙ্গা নারীদের ধর্ষণ করা হচ্ছে। বাংলাদেশে পালিয়ে আসা বেশিরভাগ রোহিঙ্গা নারী ধর্ষণ ও যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। আইওএম-এর বাংলাদেশ মিশন প্রধান স্বরাষ্ট্র সচিবকে বলেছেন, তাদের হিসাবে গত বছরের ৯ অক্টোবর থেকে এ পর্যন্ত ৭০ হাজার রোহিঙ্গা নারী, পুরুষ ও শিশু বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। তারা কক্সবাজারের কুতুপালং, লেদা শরণার্থী শিবিরসহ আশপাশ এলাকায় আশ্রয় নিয়েছেন। কিন্তু এখানেও এসে দালালচক্রের মাধ্যমে তারা নানা হয়রানির শিকার হচ্ছেন। তাদের স্বাস্থ্যসেবার অবস্থা খুব খারাপ। যেসব নারী সন্তান প্রসব করছেন, তাদের সেই সন্তান চুরির ঘটনাও ঘটছে। এ ছাড়া তাদের বিপথে ঠেলে দিতে বিভিন্ন চক্র কাজ করছে।

তিনি আরও বলেন, যেসব রোহিঙ্গা নারী মিয়ানমারে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন, তাদের অনেকে মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেছেন। এক ধরনের অজানা আতঙ্ক তাদের তাড়া করছে। ওই নারীদের বিশেষ কাউন্সেলিংয়ের মাধ্যমে স্বাভাবিক জীবনে ফেরাতে তারা ইতোমধ্যে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ করেছেন। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ ব্যাপারে কাজ শুরু করবে। এ ছাড়া বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের নিরাপত্তায় আরও কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়া উচিত। তাদের আশ্রয় এবং বিভিন্ন চাকরি দেওয়ার নামে প্রতিনিয়ত হয়রানি করা হচ্ছে বলেও সচিবকে জানিয়েছেন আইওএম প্রতিনিধি দলটি।

এ ব্যাপারে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ আমাদের সময়কে বলেন, যেসব রোহিঙ্গা সদস্য বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছেন মানবিক কারণে তাদের নিরাপত্তায় সর্বোচ্চ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। কেউ যেন তাদের বিপথে ধাবিত করতে না পারে সেজন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নজর রাখছে।

সূত্র জানায়, আইওএম প্রতিনিধি দলটি সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের দুঃখ-দুর্দশা নিয়ে তৈরি করা একটি প্রতিবেদন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সচিবের কাছে দাখিল করেছেন। যে প্রতিবেদনে মিয়ানমার সেনাবাহিনী দ্বারা রোহিঙ্গা নারীদের ধর্ষণ, যৌন নির্যাতন ও হত্যাকা-ের মর্মস্পর্শী তথ্য তুলে ধরা হয়েছে।

 

 

"

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে