চসিকের হোল্ডিং ট্যাক্স ১৭ শতাংশই বহাল

  চট্টগ্রাম ব্যুরো

১৯ আগস্ট ২০১৭, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) গৃহকর ১৭ শতাংশ হারে পরিশোধ করতে হবে নগরবাসীকে। এ সংক্রান্ত একটি আবেদন গত বুধবার হাইকোর্ট খারিজ করে দেওয়ার পর আগের নিয়মে অর্থাৎ ১৭ শতাংশ গৃহকর আদায়ে সিটি করপোরেশনের আর কোনো বাধা থাকল না।

চসিক সূত্র জানায়, সিটি করপোরেশন আদর্শ কর তফসিল ২০১৬-এর আইন অনুসারে গৃহকর ৭ শতাংশ, পরিচ্ছন্নতা কর ৭ শতাংশ, আলোকায়ন কর ৫ শতাংশ ও স্বাস্থ্য কর ৮ শতাংশ হারে সর্বমোট ২৭ শতাংশ কর আদায় করার নিয়ম রয়েছে; কিন্তু চসিক গৃহকর ৭ শতাংশ, পরিচ্ছনতা কর ৭ শতাংশ ও আলোকায়ন কর ৩ শতাংশ হারে সর্বমোট ১৭ শতাংশ হারে কর আদায় করে থাকে; কিন্তু চসিক গৃহকর ৭ শতাংশ আদায় না করে ১০ শতাংশ বাড়তি কর আদায় করছে মর্মে ২০১৬ সালের ২৫ অক্টোবর বিষয়টির প্রতিকার চেয়ে চসিকের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে মামলা করেন চট্টগ্রাম করদাতা সুরক্ষা পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক কামাল উদ্দিন, করদাতা সুরক্ষা পরিষদের সদস্য জহিরুল হক, সৈয়দ হোসেন, মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন ও হাসান মারুফ রুমি। মামলার চার সপ্তাহের মধ্যে স্থানীয় সরকার সচিব, চট্টগ্রামের মেয়র ও চসিকের প্র্রধান রাজস্ব কর্মকর্তাকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছিল।

আদালতের আদেশ মেনে চসিক যাবতীয় তথ্য-উপাত্ত উপস্থাপন করে। বিচারপতি মঈনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি জেবিএম হাসানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের বেঞ্চ আবেদনকারীদের রিট মামলাটি খারিজ করেন। সে সঙ্গে এখন থেকে ১৭ শতাংশ হারে কর আদায় করতে পারবে বলেও আদেশ জারি করেন হাইকোর্ট।

চসিক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন আমাদের সময়কে বলেন, যে চারজন আদালতে আবেদন করেছিলেন, কেবল তাদের কাছ থেকেই কর আদায়ে ছয় মাসের অন্তর্বর্তীকালীন নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছিল। পুরো শহরে কর আদায় কিংবা জরিপের কাজ ওই নিষেধাজ্ঞার আওতার বাইরে ছিল। এখন এ ব্যাপারে আদালতের আর কোনো বিধি-নিষেধ নেই। মেয়র বলেন, সরকারতো ২৭ শতাংশ কর আদায় করতে বলেছে; কিন্তু আমরা নগরবাসীর স্বার্থের কথা ভেবে ১৭ শতাংশ আদায় করে থাকি।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে