জুমাকে সরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০১:১৭ | প্রিন্ট সংস্করণ

দক্ষিণ আফ্রিকার ক্ষমতাসীন আফ্রিকান ন্যাশনাল কংগ্রেস (এএনসি) পার্টি জ্যাকব জুমাকে প্রেসিডেন্ট পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। দলের জ্যেষ্ঠ সদস্যের বরাত দিয়ে এ খবর নিশ্চিত করেছে বিবিসি। জুমার প্রেসিডেন্ট পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া নিয়ে কয়েক দিন থেকেই জল্পনা চলছিল।

এনএনসি দলের শীর্ষ নেতৃত্বাধীন অংশ ম্যারাথন বৈঠকের পর গতকাল মঙ্গলবার এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। অন্যদিকে ৭৫ বছর বয়সী জুমা পদত্যাগে রাজি হয়েছেন; তবে আগামী তিন বা ছয় মাস তিনি সময় চেয়েছেন।

এএনসির ১০৭ সদস্যবিশিষ্ট নির্বাহী কমিটি একটি হোটেলে ১৩ ঘণ্টা ধরে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করে। প্রেসিডেন্ট পদে থেকে একের পর এক কেলেঙ্কারিতে জড়ানোর অভিযোগে অবশেষে তারা তাকে সরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। এর আগে প্রেসিডেন্ট পদ ছেড়ে দিতে জ্যাকব জুমাকে ৪৮ ঘণ্টা সময় বেঁধে দিয়েছিল এএনসি।

২০০৯ সালে ক্ষমতায় বসার পর থেকে দুর্নীতির অভিযোগ আসতে থাকে জুমার বিরুদ্ধে। জুমা বরাবরই এসব অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন। ব্যক্তিগত বাড়ি নির্মাণে সরকারি কোষাগার থেকে ব্যয় হওয়া অর্থ ফেরত দিতে ব্যর্থতার দায়ে ২০১৬ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার সর্বোচ্চ আদালত জুমার বিরুদ্ধে সংবিধান লঙ্ঘনের অভিযোগ আনে। এর রেশ না কাটতেই গত বছর সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগ ১৯৯৯ সালে স্বাক্ষরিত এক অস্ত্র চুক্তিতে দুর্নীতি, জালিয়াতি, কালোবাজারি ও মুদ্রা পাচারের ১৮ ধরনের অভিযোগে জুমার বিচার শুরুর নির্দেশ দেন। শেষ পর্যন্ত গত বছরের শেষদিকে এএনসির শীর্ষপদ থেকে সরে যেতে বাধ্য করা হয় জুমাকে। ওই সময় সিরিল রামপোসা দলের শীর্ষ নেতা নির্বাচিত হন। এর পর থেকেই ক্ষমতা থেকে সরে যেতে জুমার ওপর ধারাবাহিকভাবে চাপ বাড়তে থাকে।

জুমা অবশ্য কয়েকবারই তার পদত্যাগের সম্ভাবনা নাকচ করেছিলেন। মঙ্গলবার সকালে এএনসির নির্বাহী কমিটির বৈঠক থেকে রামপোসা প্রেসিডেন্টের বাসভবনে যান এবং সেখানে তিনি জুমাকে পদত্যাগের জন্য ৪৮ ঘণ্টা সময় বেঁধে দেওয়ার দলীয় সিদ্ধান্তের কথা জানান। এর আধা ঘণ্টার পরেই রামপোসা এএনসির নির্বাহী বৈঠকস্থলে ফিরে আসেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে