advertisement
Dr Shantu Kumar Ghosh
advertisement
Dr Shantu Kumar Ghosh
advertisement
advertisement

আম খাওয়া কতটা নিরাপদ?

১০ মে ২০১৯ ১২:৩৪
আপডেট: ১০ মে ২০১৯ ১২:৩৪

কাঁচা কিংবা পাকা, আম খেতে অপছন্দ করেন এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া মুশকিল।  দুর্বিষহ এই গরমে প্রায় প্রতিদিনের বাজারের সঙ্গেই আম আসছে বাড়িতে।  তাই প্রতিবার খাবারের পর ফজলি, ল্যাংড়া, হিমসাগর আমের নরম টুকরোগুলো পাতে নিয়ে বসছেন অনেকেই। কিন্তু সুস্বাদু এই ফল খাওয়া স্বাস্থ্যের পক্ষে কতটা নিরাপদ?

বিশেষজ্ঞদের মতে, অতিরিক্ত আম খেলেও শরীর স্বাস্থ্যের মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে।  এ বিষয়ে সবিস্তারে জেনে নেওয়া যাক...

* আম রক্তে চিনির মাত্রা বহুগুণ বাড়িয়ে দেয়। তাই যারা ডায়াবেটিসে আক্রান্ত তাদের পক্ষে আম খাওয়া মোটেই নিরাপদ নয়। ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণে রাখতে তাই আম খান মেপে মেপে। প্রয়োজনে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

* অতিরিক্ত পরিমাণে আম খেলে বাড়তে পারে হজমের সমস্যা। অতিরিক্ত আম খাওয়ার ফলে গ্যাসটাইট্রিসের সমস্যাও মাথা চাড়া দিতে পারে।

* যারা আর্থারাইটিস কিংবা বাতের সমস্যা ভোগেন তাদের আম এড়িয়ে চলাই ভালো। আম খেলে আর্থারাইটিস কিংবা বাতের ব্যথা বাড়ার আশঙ্কা বহুগুণ বেড়ে যায়।

* আমে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি আর ক্যালোরি। যারা স্থুলতা বা ওবেসিটির সমস্যায় ভুগছেন, তাদের আম এড়িয়ে চলাই ভালেঅ।

* খেয়াল রাখবেন, আমের গায়ে লেগে থাকা আঠা যেন কোনোভাবে মুখে না লাগে। আমের এই আঁঠা মুখের কোমল ত্বকে লাগলে জ্বালা, চুলকানির মতো নানা সমস্যা হতে পারে।

* যাদের ত্বকে অ্যালার্জির প্রবণতা আছে, তাদের আম এড়িয়ে চলাই ভাল।  আম খেলে ত্বকে জ্বালা, চুলকানি, র‌্যাশ বেরনোর মতো একাধিক সমস্যা দেখা দিতে পারে।

* অনেকে আম চিবিয়ে বা চুষে না খেয়ে রস (জুস) করে খান। এতে আমে থাকা ফাইবার নষ্ট হয়ে যায়। ফলে শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় আমের ফাইবারের গুণাগুণ পাওয়া যায় না। উল্টো অতিরিক্ত আম খেলে পেটের নানা সমস্যা বেড়ে যেতে পারে।