advertisement
Dr Shantu Kumar Ghosh
advertisement
Dr Shantu Kumar Ghosh
advertisement
advertisement

এক রাতেই ইমরানের হাসপাতালে ২০ কোটি টাকা অনুদান!

১৩ মে ২০১৯ ১৪:৫৮
আপডেট: ১৩ মে ২০১৯ ১৪:৫৮

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের মায়ের নামে করা ক্যান্সার হাসপাতালে এক রাতেই ২০ কোটি টাকা দান করলেন তার শুভাকাঙ্ক্ষীরা। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এই টুইটের মাধ্যমে এ নিয়ে উচ্ছ্বাসও প্রকাশ করেছেন তিনি।

গত শনিবার এক টুইটে ইমরান খান লিখেছেন, ‘আমি সব শুভাকাঙ্ক্ষীদের ধন্যবাদ জানাতে চাই। ইফতারের এই অনুষ্ঠানে যে অনুদান এসেছে তা অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। এক রাতেই ২০ কোটি টাকা অনুদান পেয়েছে শওকত খানম মেমোরিয়াল ট্রাস্ট। সমস্ত অনুদান কেবল ক্যান্সার আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্যেই ব্যয় করা হবে বলেও জানান বিশ্বকাপজয়ী এই ক্রিকেটার।

পাকিস্তানভিত্তিক সংবাদমাধ্যম দ্য নিউজ জানিয়েছে, ইমরান খান ও তার ক্যান্সার হাসপাতাল সম্পর্কে তার শুভাকাঙ্ক্ষীরা বিবিসিকে এক সাক্ষাৎকার দেন।  সেখানে তারা জানান, ইমরান ক্রিকেটার হিসেবে সফল ছিলেন। যখন ক্যান্সার হাসপাতাল করার উদ্যোগ নিলেন, সবাই বলেছিল হাসপাতাল সম্ভব না। কিন্তু সেটি তিনি প্রতিষ্ঠা করেছেন। রাজনীতিতে আসার পর তাকে অনেক বাধার মুখে পড়তে হয়েছে। কিন্তু তিনি ঝুঁকি নিয়েছিলেন। সেসব বাঁধা উপেক্ষা করে তিনি হাসপাতালটি প্রতিষ্ঠা করেছেন।

কিন্তু কেন এই হাসপাতাল? বিবিসির সংবাদদাতার এমন প্রশ্নের জবাবে ইমরান খানের শুভাকাঙ্ক্ষীদের জানান, দুরারোগ্য ক্যান্সারে নিজের মাকে তিলে তিলে মৃত্যু পথযাত্রী হতে দেখেছেন ইমরান।  হাজারো চেষ্টা করে মাকে বাঁচাতে পারেননি তিনি। আর তাই মায়ের স্মৃতিতে তিনি তৈরি করেন দেশের প্রথম ক্যান্সার স্পেশালাইজড হাসপাতাল। নাম শওকত খানম মেমোরিয়াল ক্যান্সার হাসপাতাল। ইমরানের চূড়ান্ত আত্মবিশ্বাসের কারণেই তার এত বড় স্বপ্নপূরণ হয়েছে বলে জানিয়েছেন পাকিস্তানের মানুষ।

১৯৯৪ সালে লাহোরে গড়ে ওঠা এই হাসপাতালের শয্যা সংখ্যা ৬০০। এই হাসপাতালটির অনন্য বৈশিষ্ট্য হলো এখানে ৭৫ শতাংশ ক্যান্সার রোগীকে বিনামূল্যে চিকিৎসা প্রদান করা হয়। শুধু লাহোরেই নয়, একইভাবে পেশোয়ারেও নির্মাণ করেন আরেকটি ক্যান্সার হাসপাতাল। এসব হাসপাতালের প্রায় ৭০ শতাংশ চিকিৎসাই হয় অসহায় দরিদ্রদের যা সম্পূর্ণ বিনামূল্যে।