advertisement
Dr Shantu Kumar Ghosh
advertisement
Dr Shantu Kumar Ghosh
advertisement
advertisement

রাজনীতিতে আসছেন এরশাদপুত্র সাদ

আলী আসিফ শাওন ও মুহম্মদ আকবর
১৬ মে ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৬ মে ২০১৯ ১৫:২২

আলী আসিফ শাওন ও মুহম্মদ আকবর নতুন চমক আসছে জাতীয় পার্টিতে (জাপা)। বগুড়া-৬ আসনে আসন্ন উপনির্বাচনে এ চমক দেখা যেতে পারে। এতে মহাজোটের প্রার্থী হিসেবে ভোটের লড়াইয়ে নামতে পারেন জাপার প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের বড় ছেলে রাহগির আল মাহি।

‘সাদ এরশাদ’ হিসেবে পরিচিত এরশাদ-রওশন দম্পতির এ সন্তানের রাজনীতিতে অভিষেক ঘটতে পারে এর মাধ্যমে। সূত্রের খবর, বিষয়টি নিয়ে মহাজোটের নেতৃত্বদানকারী আওয়ামী লীগের শীর্ষপর্যায়ের সঙ্গে আলোচনা চলছে জাপার। সরকারি দলের নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের দুই নেতা আমাদের সময়কে নিশ্চিত করেছেন, উপনির্বাচনে বগুড়া-৬ আসন সাদ এরশাদকেই ছেড়ে দেওয়া হবে। তবে তারা আনুষ্ঠানিকভাবে মন্তব্য করতে রাজি হননি।

এদিকে জাপা নেতাদের অনেকে বলছেন, রাজনীতির মাঠে ‘অপরিচিত’ সাদ এরশাদ বেশিরভাগ সময় ব্যবসায়িক কাজে দেশের বাইরে থাকেন। হঠাৎ করে রাজনীতিতে এসে নির্বাচনী মাঠে কতটা সুবিধা করতে পারবেন, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলার সুযোগ রয়েছে। বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ আসন থেকে একাদশ সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী হলেও নির্ধারিত সময়ে শপথ না নেওয়ায় আসনটি শূন্য হয়। এরই ধারাবাহিকতায় নির্বাচন কমিশন এ আসনে ২৪ জুন নির্বাচন অনুষ্ঠানের ঘোষণা দেয়।

একাদশ সংসদ নির্বাচনে এ আসনে কোনো প্রার্থী দেয়নি আওয়ামী লীগ। মহাজোটসঙ্গী জাপার জন্য এ আসনে ছাড় দেওয়া হয়েছিল। এবারও এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছেÑ জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের শীর্ষপর্যায়ের দুই নেতা।

আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ আমাদের সময়কে বলেন, বগুড়া-৬ উপনির্বাচনে দল থেকে মনোনয়নপ্রত্যাশীদের ফরম সংগ্রহ করতে বলা হয়েছে। আগামী রবিবার দলের মনোনয়ন বোর্ড এবং স্থানীয় সরকার নির্বাচনের মনোনয়ন বোর্ডের যৌথসভা হবে। ওই সভায় প্রার্থী চূড়ান্ত করা হবে।

আওয়ামী লীগের দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, আজ ও আগামীকাল এ দুদিন বগুড়া-৬ আসনে দল থেকে মনোনয়নপ্রত্যাশীদের কাছে ফরম বিক্রি করবে আওয়ামী লীগ। দলটির এমপি পদপ্রত্যাশী নেতারা সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টার মধ্যে দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করবেন। আগামী শনিবার বিকাল ৫টার মধ্যে ফরম জমা দিতে হবে।

জাপার অধিকাংশ নেতাই অবশ্য এরশাদতনয়ের রাজনীতিযাত্রার বিষয়টি স্রেফ গুঞ্জন বলে মনে করছেন। সম্প্রতি করা ট্রাস্টেও সাদকে রাখেননি পার্টির চেয়ারম্যান। শুধু তা-ই নয়, তাকে দলের সাধারণ সদস্য পদও দেওয়া হয়নি। এমন অবস্থায় মনোনয়ন দেওয়ার বিষয়টি নেতাদের কাছে গুরুত্ব পাচ্ছে না।

এ উপনির্বাচনে এবারও দলের মনোনয়ন চান একাদশ সংসদ নির্বাচনে মির্জা ফখরুলের কাছে পরাজিত জাপার হয়ে লড়াই করা নূরুল ইসলাম ওমর। পাশাপাশি সদ্য জাপায় যোগ দেওয়া আশরাফুল ইসলাম, যিনি ‘হিরো আলম’ হিসেবে পরিচিত; তিনিও মনোনয়ন চান।

জাপার ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জিএম কাদের আমাদের সময়কে বলেন, মনোনয়নের বিষয়ে এখনো সিদ্ধান্ত হয়নি। দলের মনোনয়ন বোর্ডের সদস্যদের সম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত হবে। যাকে নিয়ে এত গুঞ্জন, এত আলোচনা; সেই সাদ এরশাদের সঙ্গে আমাদের সময়ের পক্ষ থেকে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও শেষ পর্যন্ত তাকে পাওয়া যায়নি। পারিবারিক সূত্রের খবর, তিনি এখন মালয়েশিয়ায়।