advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

পদ্মা সেতুর আদলে হচ্ছে যুবলীগের সম্মেলনমঞ্চ

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৯ নভেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৯ নভেম্বর ২০১৯ ০০:৪৯
advertisement

পদ্মা সেতুর আদলে তৈরি হচ্ছে আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন যুবলীগের সম্মেলনের মঞ্চ। আগামী ২৩ নভেম্বর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে এ মঞ্চ থেকেই সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ মঞ্চে বসেই প্রধানমন্ত্রী আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান তথা সম্মেলনের প্রথম পর্ব উপভোগ করবেন বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও যুবলীগের সাবেক চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবির নানক। গতকাল সোমবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের

সম্মেলনস্থল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন। এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মির্জা আজম, যুবলীগের সভাপতিম-লীর সদস্য অ্যাডভোটে বেলাল হোসাইন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সুব্রত পাল, প্রচার সম্পাদক ইকবাল মাহমুদ বাবলু, সহসম্পাদক শামসুল কবির রাহাত প্রমুখ।

সংগঠনের সদস্যদের বয়সসীমা কমা বা বাড়া নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে নানক বলেন, যুবলীগের প্রথম সম্মেলনে সদস্যদের বয়সসীমা করা হয়েছিল ৩৫ বছর। এরপর নানা সময়ে বিভিন্ন বয়সের নেতৃবৃন্দ এসেছেন। আমিও যুবলীগের চেয়ারম্যান ছিলাম। আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা তিনবার রাষ্ট্র পরিচালনায় অবলোকন করেছেন যে, বাংলাদেশের মানুষের আয়ু বেড়েছে। ফলে তিনি চাইছেন প্রকৃত যুবকরাই যুবলীগের নেতৃত্বে থাকুক। সে কারণে তিনি ৫৫ বছরের ঊর্ধ্বে কেউ যুবলীগে থাকবে নাÑ এটা স্পষ্ট বলে দিয়েছেন। আমরা মনে করি, তিনি সঠিক সিদ্ধান্তই নিয়েছেন। সুতরাং এর ব্যত্যয় ঘটার সুযোগ আছে বলে আমি মনে করি না।

আরেক প্রশ্নে নানক বলেন, ঢাকা মহানগর যুবলীগ উত্তর ও দক্ষিণের সম্মেলনটি কেন্দ্রীয় সম্মেলনের আগে হওয়া উচিত ছিল। ঘটনাক্রমে এর ব্যত্যয় ঘটেছে। বিষয়টি নিয়ে আমরা চিন্তা করেছি। আমরা পার্টির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে আলোচনা করেছি। আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা দেশে ফিরলে এ ব্যাপারে তার সঙ্গেও আলোচনা করব।

যুবলীগের সদ্য সাবেক চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরীসহ বিতর্কিত নেতারা আমন্ত্রণ পাবেন কিনা জানতে চাইলে নানক বলেন, আপনারা জানেন স্বেচ্ছাসেবক লীগেরও সম্মেলন হয়ে গেছে। দেখে থাকবেন, স্বেচ্ছাসেবক লীগ থেকে অব্যাহতি পাওয়া নেতৃবৃন্দ কিন্তু সম্মেলনে আসতে পারেননি। ফলে যুবলীগের কংগ্রেসেও তাদের আমন্ত্রণ জানানো হবে না।

সম্মেলন প্রস্তুত কমিটির আহ্বায়ক চয়ন ইসলাম জানান, যুবলীগের কংগ্রেসে ভিন্নধর্মী একটি সাংস্কৃতিক পরিবেশনা থাকবে। দেশের প্রতিশ্রুতিশীল শিল্পীরা সাংস্কৃতিক পরিবেশনায় অংশ নেবেন।

advertisement