advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

গোলাপি বলে বাড়তি সুবিধা পাবেন স্পিনাররা

সাইফুল ইসলাম রিয়াদ ইন্দোর থেকে
১৯ নভেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৯ নভেম্বর ২০১৯ ০০:৫৬
advertisement

নিজেদের টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো দিবারাত্রির টেস্ট খেলতে নামছে বাংলাদেশ-ভারত। ফ্লাড লাইটের আলোয় গোলাপি বলে দুই দেশের মধ্যে অভিজাত ক্রিকেটের লড়াই শুরু হবে ২২ নভেম্বর কলকতার বিখ্যাত ইডেন গার্ডেনে। এই টেস্ট খেলতে নামার আগে আলোচনা এখন গোলাপি বলের আচরণ কেমন হবে তা নিয়ে। দুই দলই খেলতে নামবে প্রথমবারের মতো, তাই অনেক অজানার মধ্যে যারা মাঠে সেরাটুকু দিতে পারবেন, তারাই এগিয়ে যাবেন। ইন্দোরের পাঁচ দিনের টেস্ট তিন দিনেই শেষ হয়ে যাওয়ায় বাংলাদেশ দুদিন ধরে গোলাপি বলে ফ্লাড লাইটের আলোয় কঠোর অনুশীলন করেছে। গতকাল অনুশীলন শেষে স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজ কথা বলেন এই বলের আচরণ নিয়ে।

‘আজ আমি ব্যাটিং করেছি, বলটা একটু মুভ করতেছিল। আমার কাছে মনে হয় বলটা একটু ভারী ব্যাটে লাগলে খুব দ্রুত যায়। আমার কাছে মনে হয় পিংক বলে সুইং থাকতে পারে একটু বেশি প্রথম দিকে, অনেক সময় কাটও করতে পারে। দেখলাম মাঝেমধ্যে বল কাটও করছে। তার পরও ম্যাচে গেলে কেমন হয় সে ব্যাপারে আমাদের কারওই অভিজ্ঞতা নেই। আমরা অনুশীলন করেছি, যতটুকু সময় পেয়েছি আমরা কাভার করার চেষ্টা করেছি এবং পিংক বলে শতভাগ ইউটিলাইজ করার চেষ্টা করেছি’Ñ গোলাপি বল নিয়ে এভাবেই বলছিলেন মিরাজ।

মেহেদী মিরাজ ভারতের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে বোলিংয়ে কোনো অবদান রাখতে না পারলেও দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে দুর্দান্ত খেলেছিলেন। প্রথম ইনিংসে তার ব্যাট থেকে কোনো রান আসেনি। দ্বিতীয় ইনিংসে করেন ৫৫ বলে ৩৮ রান। বিপদের সময় ক্রিজে থাকা মুশফিকুর রহীমের সঙ্গে সপ্তম উইকেটে ৫৯ রানের জুটি গড়েন। ব্যাটিং নিয়ে মিরাজ বলেন, ‘এটা নিয়ে আমাদের কথা হয়েছে, কোচও কথা বলেছেন; বিশেষ করে আমার সঙ্গে ও যারা পেস বোলার আছে তাদের সঙ্গে। আমরা যেন একজন ভালো ব্যাটসম্যান ক্রিজে থাকলে তাকে সাপোর্ট দিতে পারি, রান না করলেও ২০-৩০টা বল খেলে সমর্থন অন্তত দিতে পারি। প্রথম দিকে একটু স্ট্রাগল করতে হবে কারণ আমার কাছে মনে হয় শুরুতে অ্যাডজাস্ট করতে পারলে, সেট হতে পারলে পরে ইজি হয়ে যাবে।’

মুশফিকের সঙ্গে জুটি নিয়ে মিরাজ বলেন, ‘মুশফিক ভাই সব সময় আমাকে ব্যাটিং নিয়ে বলেন, একটা জিনিস দেখেনÑ বাংলাদেশ টিমের যতগুলো বড় জুটি হয়েছে বেশিরভাগই মুশফিক ভাইয়ের সঙ্গে হয়েছে। ওয়ানডে বলেন টেস্ট বলেন, ওনার সঙ্গেই হয়েছে, ওনার সঙ্গে আমার বোঝাপড়া ভালো হয়।’

ভারত ও বাংলাদেশ ছাড়া টেস্ট খেলুড়ে সবদেশই গোলাপি বলে দিবারাত্রির টেস্ট খেলেছে। এ তালিকায় এবার যুক্ত হচ্ছেন কোহলি-মুমিনুলরা। এখন পর্যন্ত হওয়া ১১টি টেস্টের সবগুলোতেই ফল হয়েছে, সবচেয়ে বেশি জিতেছে অস্ট্র্রেলিয়া। বাংলাদেশের খেলোয়াড়রাও পিংক বলে খেলার জন্য মুখিয়ে আছেন। তার পরও তারা বলের আচরণ নিয়ে সতর্ক। আসলে সবাই পজিটিভ, সঙ্গে এক্সাইটেডও এরকম পিংক বল ও ফ্লাড লাইটে প্রথমবার খেলা নিয়ে। বলটা এস ইজুয়াল, তারপরও কেয়ারফুল থাকতে হবে কারণ ম্যাচেতো আমাদের যতটুক অনুশীলন হয়েছে সেটাই কাভার করতে হবে’Ñ বলছিলেন মিরাজ।

প্রথম ম্যাচে ভারত এক ইনিংস ব্যাটিং করেছিল। প্রথম দিনের শেষ সেশন ও দ্বিতীয় দিন পুরো ব্যাটিং করা ভারতের উইকেট মাত্র ছয়টি পড়েছে।

advertisement