advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

ইংল্যান্ড, শ্রীলংকা ও আরব আমিরাতে আইপিএল!

ক্রীড়া ডেস্ক
৯ মে ২০২১ ০০:০০ | আপডেট: ৮ মে ২০২১ ২৩:৫১
advertisement

বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার ও স্টাফ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় টুর্নামেন্টের মাঝপথেই স্থগিত হয়েছে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) চতুর্দশ আসর। কবে নাগাদ টুর্নামেন্টটি পুনরায় শুরু হবে সেটি কারও কাছেই স্পষ্ট নয়।

তবে টুর্নামেন্টের বাকি অংশ আয়োজনের ইচ্ছা প্রকাশ করেছে সংযুক্ত আরব আমিরাত, ইংল্যান্ডের কাউন্টি দলসহ আরও কিছু দেশ। সেই তালিকায় সর্বশেষ সংযোজন শ্রীলংকা। তবে ইংল্যান্ড ও আরব আমিরাতেও আইপিএল হতে পারে সেপ্টেম্বরে (চলতি বছরের বাকি ম্যাচ)।

টুর্নামেন্টের বাকি ৩১টি ম্যাচ আয়োজন করতে চায় শ্রীলংকা ক্রিকেট (এসএলসি)। এমনটি নিশ্চিত করেছেন এসএলসির ম্যানেজিং কমিটির প্রধান প্রফেসর অর্জুনা ডি সিলভা।

এ ব্যাপারে অর্জুনা বলেন, ‘হ্যাঁ, অবশ্যই। সেপ্টেম্বরে আইপিএল আয়োজন করার জন্য আমরা একটা উইন্ডো দেখছি। আমরা শুনেছি সংযুক্ত আরব আমিরাত তাদের একটি বিকল্প, তবে সবদিক বিবেচনায় শ্রীলংকাকে উপেক্ষা করা যাবে না। আমরা জুলাই-আগস্টে লংকা প্রিমিয়ার লিগ (এলপিএল) আয়োজনের পরিকল্পনা করছি। তবে মাঠ এবং অন্যান্য অবকাঠামো সেপ্টেম্বরে আইপিএলের জন্য প্রস্তুত থাকবে।’

ইতোমধ্যে আইপিএলের বাকি ম্যাচগুলো আয়োজনের ইচ্ছা জানিয়েছে ইংল্যান্ডের চার কাউন্টি দলÑ এমসিসি, সারে, ওয়ারউইকশায়ার ও ল্যাঙ্কাশায়ার। তারা নিজেদের মাঠে আইপিএল আয়োজন করতে ইচ্ছুক।

আইপিএলের বাকি অংশ আয়োজনে বিভিন্ন দেশের আগ্রহ থাকলেও বিসিসিআইয়ের পক্ষ থেকে এখনো এ বিষয়ে কিছু বলা হয়নি। এক সূত্র বলছে, আগামী সেপ্টেম্বরে নিজ দেশে আইপিএলের বাকি অংশ আয়োজনের চিন্তা রয়েছে বিসিসিআইয়ের।

গত ৪ মে আইপিএলের বিভিন্ন ফ্র্যাঞ্চাইজি দলের খেলোয়াড়দের মধ্যে করোনা শনাক্ত হয়। এতে ওইদিন আইপিএল স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নেয় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। এর পর আইপিএলে খেলতে আসা বিদেশি খেলোয়াড়দের দেশে ফেরত পাঠানোর ব্যবস্থা করে বিসিসিআই।

advertisement