advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

সুনামগঞ্জে সরকারি জমি চিহ্নিতের সময় হামলা

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি
১১ জুন ২০২১ ০০:০০ | আপডেট: ১০ জুন ২০২১ ২৩:০৮
advertisement

সুনামগঞ্জে মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে ভূমিহীনদের বসতঘর নির্মাণের জন্য সরকারি খাসজমি চিহ্নিত করতে গিয়ে দখলদারদের হামলায় এসিল্যান্ড, তহশিলদার, পুলিশ, আনসার সদস্যসহ কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছেন। এ সময় পুলিশ ও আনসার সদস্যরা আত্মরক্ষার্থে ১৩ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়েন। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে সদর উপজেলার রঙ্গারচর ইউনিয়নের আদারবাজারের পার্শ্ববর্তী হরিণাপাটি গ্রামের কাছে। এ ঘটনায় গতকাল বিকাল পর্যন্ত পুলিশ এক নারীসহ আটজনকে আটক করেছে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন ও পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান। সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, হরিণাপাটি এলাকায় সরকারের খাস খতিয়ানভুক্ত ২৫ একর জমি রয়েছে। মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে ১৫টি গৃহহীন পরিবারের জন্য ঘর নির্মাণ করতে ৩০ শতাংশ জমি চিহ্নিতে গতকাল দুপুরে সেখানে যান সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আরিফ আদনান, দুজন তহশিলদার, সার্ভেয়ার,

পুলিশ ও আনসার সদস্যরা। ভূমি অফিসের লোকজন জমি চিহ্নিতের কাজ শুরু করতেই হরিণাপাটিসহ আশপাশের গ্রামের নারী-পুরুষ দা, রামদা, লাঠিসোঁটা নিয়ে তাদের ওপর হামলা চালায়। তারা এসিল্যান্ড আরিফ আদনান, তহশিলদার কামাল হোসেন এবং পুলিশের এসআই জাহাঙ্গীর আলমকেও আক্রমণ করে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশ ও আনসার সদস্যরা ফাঁকা গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। পরে অতিরিক্ত পুলিশ এসে হামলাকারীদের বাড়িঘরে তল্লাশি চালিয়ে দেশীয় নানা ধরনের অস্ত্র উদ্ধার করে। হামলায় জড়িত থাকার অভিযোগে আটক করা হয় আটজনকে। পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান বলেন, ফের সংঘর্ষের আশঙ্কায় সুনামগঞ্জ সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জয়নাল আবেদীন ও সুনামগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি শহীদুর রহমানের নেতৃত্বে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। আটককৃতদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, প্রধানমন্ত্রী মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে গৃহ ও ভূমিহীনদের বিনামূল্যে ঘর নির্মাণ করে দিচ্ছেন। অবৈধ দখলদাররা সংঘবদ্ধ হয়ে গৃহহীনদের ঘরের জন্য জমির সীমানা চিহ্নিত করার সময় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ওপর হামলা করেছে। যারা সরকারি কাজে বাধা দিয়েছে ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ওপর হামলা করেছে, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

advertisement