advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

খুলনার অন্য রোগীরা চিকিৎসাবঞ্চিত

এসএম কামাল, খুলনা
২৩ জুন ২০২১ ০০:০০ | আপডেট: ২২ জুন ২০২১ ২৩:৪২
advertisement

খুলনার রূপসা উপজেলার আজোগড়া থেকে বৃষ্টিতে কাকভেজা হয়ে জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে এসেছেন সাথী বেগম (৪২) নামে এক গৃহবধূ। সঙ্গে শাশুড়ি সাজু বিবি ও মেয়ে জান্নাত বুলবুলি। কিন্তু হাসপাতালে এসে দেখেন চিকিৎসা বন্ধ। সবাই ব্যস্ত করোনা রোগীদের নিয়ে। চোখেমুখে অনেকটা অনিশ্চয়তা আর হতাশা নিয়ে ফিরে যেতে হচ্ছে তাদের।

খুলনার কয়রা উপজেলা থেকে এসেছেন সারাফত ইসলাম। আর নগরীর লবণচরা এলাকা থেকে সুদর্শন চক্রবর্তী। তারা সবাই একই ধরনের ভোগান্তিতে পড়েছেন। নিরুপায় হয়ে ছুটছেন খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের দিকে।

খুলনার ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালকে করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতাল ঘোষণা করা হয়েছে। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে জরুরিসহ অন্যান্য বিভাগের সেবা। করোনা বিভাগে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে অন্যান্য বিভাগের সেবাকর্মীদের। আর এতেই বিপাকে পড়েছেন স্বল্পআয়ের সাধারণ মানুষ। চিকিৎসার জন্য এখন তাদের একমাত্র ভরসা খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, খুলনা জেনারেল হাসপাতাল প্রশাসনিকভাবে ২৫০ শয্যার অনুমোদন পেলেও শয্যা সংখ্যা রয়েছে ১৫০টি। এর মধ্যে ব্যবহারযোগ্য মাত্র ১১০টি। এগুলোর মধ্যে ৭০টিতে অক্সিজেন লাইন থাকায় সবগুলোকেই করোনা বেড করা হয়েছে। শুরু করা হয়েছে করোনা চিকিৎসা। আবার দুটি ভবনের একটি করোনা চিকিৎসায় এবং অপরটি প্রশাসনিক ও প্যাথলজির কার্যক্রম চলছে। আর বন্ধ করে রাখা হয়েছে অন্য রোগীদের সেবা। জরুরি ও অন্যান্য চিকিৎসাসেবার জন্য এ অবস্থায় মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল খুলনা অঞ্চলের মানুষের অনেকটা একমাত্র ভরসা।

খুলনার সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ নেওয়াজ বলেন, করোনা রোগীদের জন্য অক্সিজেন জরুরি। অক্সিজেন সরবরাহ করতে না পারলে তাদের জীবন হুমকির মুখে পড়ে। আর বৃহত্তর স্বার্থে করোনা চিকিৎসাকে অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে। অন্যান্য রোগী ভর্তি সাময়িক সময়ের জন্য বন্ধ রাখা

হয়েছে। এটি স্থায়ী সিদ্ধান্ত নয়। অবস্থার উত্তোরণ ঘটলে আবার আমরা রোগী ভর্তি করতে পারব।

এদিকে করোনায় খুলনায় গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে সাতজন, গাজী মেডিক্যাল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে তিনজন, জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে একজন এবং ফুলতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে একজনের মৃত্যু হয়েছে।

খুলনা বিভাগে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে বিভাগে ৯৯৮ জনের শরীরে করোনার উপস্থিতি পাওয়া গেছে।

খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক রাশেদা সুলতানা মঙ্গলবার দুপুরে জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় খুলনায় ৯ জন, কুষ্টিয়ায় ৫ জন, যশোরে ৪ জন, বাগেরহাটে ৪ জন, নড়াইলে ৩ জন ও মেহেরপুরে ২ জনের মৃত্যু হয়েছে।

খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. সুহাস হালদার জানান, হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় করোনায় সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। হাসপাতালে ১৪৯ জন রোগী ভর্তি রয়েছেন। যার মধ্যে রেডজোনে ৯৮ জন, ইয়ালোজোনে ১৩ জন, এইচডিইউতে ১৮ জন এবং আইসিইউতে ২০ জন চিকিৎসাধীন। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ভর্তি হয়েছেন ২২ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৩৪ জন।

খুলনা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. কাজী আবু রাশেদ জানান, করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২৪ ঘণ্টায় একজনের মৃত্যু হয়েছে। হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে ৩২ জন। এর মধ্যে ১৯ জন পুরুষ ও ১৩ জন নারী রয়েছেন।

advertisement