advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

ফিটনেস ফিরে পেতে মরিয়া নাসির, করতে চান বউয়ের স্বপ্ন পূরণ

ক্রীড়া প্রতিবেদক
১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০৩:১০ পিএম | আপডেট: ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০৪:২৫ পিএম
স্ত্রী তামিমার সঙ্গে নাসির হোসেন, পুরোনো ছবি।
advertisement

প্রায় সাড়ে তিন বছর ধরেই জাতীয় দলের বাইরে স্পিন অলরাউন্ডার নাসির হোসেন। দীর্ঘ সময় ধরে দলের বাইরে থাকায় ফেরার চ্যালেঞ্জ সব সময়ই তাড়া করেছে এই অভিজ্ঞ অলরাউন্ডারকে। দেশকে অনেক কিছু দিতে পারতেন তিনি। কিন্তু নানা বিতর্কে জড়িয়ে নিজের ক্যারিয়ারকে হুমকির মুখে ফেলেছেন তিনি। ঘরোয়া ক্রিকেটের প্রতিটি মৌসুমের শুরুতে জাতীয় দলে ফেরার কথা জানালেও দিন শেষে প্রতিযোগিতায় টিকে উঠা হয় না তার। এবার নিজের ফিটনেস ফিরে পাওয়ার পাশাপাশি স্ত্রী তামিমা তাম্মির স্বপ্ন পূরণে জাতীয় দলে ফিরতে মরিয়া তিনি।

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন নাসির। বিয়ের পর তার স্ত্রী গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে জানিয়েছিলেন, তার ইচ্ছা হলো নাসির আবার জাতীয় দলে ফিরুক। এবার সেই বার্তায় দিয়ে রাখলেন নাসির নিজেও। আবার জাতীয় দলে ফেরার স্বপ্ন দেখছেন এই অলরাউন্ডার।

করোনাভাইরাসের পরিস্থিতিতে দীর্ঘ সময় খোলামেলা পরিবেশে অনুশীলনের সুযোগ পায়নি ক্রিকেটাররা। যার কারণে যে যেভাবে সম্ভব হয়েছে সেভাবে ব্যক্তিগত অনুশীলন চালিয়ে গেছেন। পরিস্থিতি মোটামুটি উন্নতির দিকে। ফলে আবারও সেই সুযোগ মিলবে বলে আশা দেখছেন নাসির। তিনি বলেন, ‘ফেরার জন্য আসলে অবশ্যই ট্রেনিংয়ের কোনো বিকল্প নাই। সবচেয়ে বড় কথা হচ্ছে ফিটনেসের ওপর বেশি কাজ করতেছি। যেহেতু করোনার জন্য আমরা (অনুশীলনের জন্য) উইকেট ওভাবে পাচ্ছি না। আমার বিশ্বাস, আমরা এখন উইকেট পাবো। তো অবশ্যই ব্যাটিং-বোলিং দুইটাই হবে।’

বুধবার মিরপুরের একাডেমি ভবনের সামনে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে স্ত্রীর ইচ্ছাপূরণ নিয়ে নাসির বলেন, ‘অবশ্যই আমি চেষ্টা করবো। যতদিন ক্রিকেট খেলবো আমি চেষ্টা করবো জাতীয় দলে কামব্যাক করতে। আমার মনে হয়, এটাই সব প্লেয়ারের স্বপ্ন। আমারও স্বপ্ন আবার যাতে জাতীয় দলে কামব্যাক করতে পারি।’

আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে নাসির বলেন, ‘আমি তো চাইবো বাংলাদেশ ওয়ার্ল্ড কাপ জিতুক। এটা ডিপেন্ড করে আসলে। আপনি এভাবে বলতে পারেন না কতটুকু যাওয়ার সম্ভাবনা আছে। খেলা হচ্ছে ১২০ বলের। তো ওই ১২০ বল যারা ভালো খেলবে, ঐ দিনটা যাদের ভালো থাকবে, তারাই রেজাল্ট করবে। বাংলাদেশ যদি বিশ্বকাপ জেতে, আমার মনে হয় না এটা অসম্ভব কিছু। টি-টোয়েন্টি এমন একটা খেলা, যেখানে বড় দল আর ছোট দলের মার্জিনটা অনেক কম থাকে। আমি বিশ্বাস করি বাংলাদেশ যদি ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিং ভালো করে আর ভুল কম করে, তাহলে জেতার চান্স অনেক বেশি।’

advertisement