advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

বিশ্বকাপ মানেই তাসকিনের আক্ষেপ! অতীত ভুলে সামনে নজর

ক্রীড়া প্রতিবেদক
১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০৬:৫৪ পিএম | আপডেট: ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০৭:২০ পিএম
তাসকিন আহমেদ।সংগৃহীত ছবি
advertisement

বাংলাদেশের ক্রিকেটে বর্তমান সময়ে গতিধানব পেসার তাসকিন আহমেদ। যার ক্যারিয়ারের শুরু থেকে রয়েছে উত্থান-পতনের নানা গল্প। ২০১৪ সালে অভিষেকের পরের বছর ওয়ানডে বিশ্বকাপে খেলার টিকেট মিলে তার। দেশকে প্রথমবার কোয়ার্টার ফাইনালে খেলানোতেও রয়েছিল তার অবদান।

পরের বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগেই অবৈধ বোলিং অ্যাকশনের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় পড়েন নিষেধাজ্ঞায়। অল্পের জন্য মিস করেন সেবারের বিশ্বকাপ। এরপর ২০১৯ বিশ্বকাপে খেলার স্বপ্ন দেখলেও ফিটনেসে ঘাটতি থাকায় বাদ পড়েন এই পেসার। সেদিন তার কান্নায় ভারী হয়ে উঠেছিল মিরপুরের ইন্ডোর।

অতীতের এতো উত্থান-পতনের গল্প নিয়ে আবারও নিজেকে বিশ্বমঞ্চের জন্য তৈরি করেছেন তাসকিন। এবার তাই পুরোনো সময়কে পেছনে ফেলে সামনের দিকে তাকাতে চান তিনি। তাসকিন বলেন, 'সত্যি কথা বলতে দুইটা স্মৃতিরই আলাদা আলাদা..., যেগুলো অতীত। বর্তমানেই নজর দিতে চাই। আর সবাই দোয়া করবেন আল্লাহ যেন আমাকে সুস্থ রাখে আর ভালো করতে পারি।'

২০১৫ সালের বিশ্বকাপে ৬ ম্যাচে ৯ উইকেট শিকার করে বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি হন তিনি। আসন্ন বিশ্বকাপ স্কোয়াডে সুযোগ মিলায় নতুন সম্ভবনা ডাকছে এই পেসারকে। তিনি বলেন, 'আলহামদুলিল্লাহ আমি অনেক খুশি যে বিশ্বকাপ স্কোয়াডে সুযোগ পেয়েছি এবার। আমি খুব এক্সাইটেড যে খেলতে পারবো ইনশাআল্লাহ, আল্লাহ যদি নেয়। যদিও কন্ডিশনের কারণে লাস্ট দুইটা টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে পারিনি। কিন্তু শেষ একটা ম্যাচ খেলা হয়েছে।'

তাসকিনের বিশ্বাস, বিশ্বকাপে ভালো করবে তার দল। তিনি বলেন, 'আসলে প্রস্তুতির জন্য আমরা ১০ দিন পাচ্ছি এবং কিছু প্রাকটিস ম্যাচও পাবো, হয়তো তিনটার মতো। আমাদের কন্ডিশনই অনুযায়ী, পরিকল্পনামাফিক প্রয়োগ করতে হবে। যখন কাটার কম ধরে তখন ইয়র্কার বা লেংথ বলের প্রয়োগটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ হবে। অবশ্যই আইসিসি ইভেন্ট, মাথায় থাকবে ফ্ল্যাট ট্র্যাক বা স্পোর্টিং উইকেট হবে। চ্যালেঞ্জিং হবে বোলারদের জন্য তবে একই সময়ে প্রয়োগটা ভালোভাবে করতে পারলে ভালো করার সুযোগও থাকবে।'

ওমান বাংলাদেশ দলের জন্য নতুন ভ্যেনু, তবে দুবাই বেশ পরিচিতই। তাসকিনের কাছে দুটাই নতুন, তাই বাড়তি চ্যালেঞ্জ নিচ্ছেন তিনি। তাসকিন বলেন, 'আমি খুবই এক্সাইটেড, কারণ ওমানে এর আগে আমার কখনো খেলতে যাওয়া হয়নি। এমনকি দুবাইতেও যে ইভেন্ট গুলো হয়েছে আমি এখন পর্যন্ত ম্যাচ খেলিনি। ইনশাআল্লাহ আমার জন্য ওমান ও দুবাইতে খেলাটা একদম নতুন হবে যদি সুযোগ হয়। আমি এক্সাইটেড, একই সময়ে আমি চাই ভালো কিছু উপহার দিয়ে ম্যাচ জেতানোর।'

advertisement