advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

ভিনিসিয়াস-বেনজেমায় রিয়ালের জয়

ক্রীড়া ডেস্ক
২১ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১০:৪২ পিএম
advertisement

ম্যাচের শেষভাগে তিন মিনিটের ব্যবধানে দুই গোল করে রিয়াল মাদ্রিদকে লা লিগায় দারুণ এক জয় উপহার দিয়েছেন ভিনিসিয়াস জুনিয়র ও করিম বেনজেমা। রবিবার মেস্তালা স্টেডিয়ামে পিছিয়ে পড়েও ভ্যালেন্সিয়াকে ২-১ গোলে পরাজিত করে পূর্ণ তিন পয়েন্ট অর্জন করেছে লসব্ল্যাঙ্কোসরা। ৬৬ মিনিটে ফরোয়ার্ড হুগো ডুরোর লো স্ট্রাইকে এগিয়ে যায় ভ্যালেন্সিয়া। গত মৌসুমে গেটাফের এই স্ট্রাইকার ধারে রিয়াল মাদ্রিদে খেলার পর এ বছর ভ্যালেন্সিয়ায় ধারে খেলতে এসেছেন। ৮৬ মিনিটে ব্রাজিলিয়ান তরুণ ভিনিসিয়াসের ডিফ্লেকটেড স্ট্রাইকে সমতা ফেরায় রিয়াল। এর পর ৮৮ মিনিটে ভিনিসিয়াসের ক্রসে বেনজেমার হেডে রিয়ালের জয় নিশ্চিত হয়।

ম্যাচ শেষে উচ্ছ্বসিত ২১ বছর বয়সী ভিনিসিয়াস বলেছেন, ‘এখানে আসাটা কখনই সহজ নয়। বিশেষ করে প্রথমে গোল হজম করার পর সব কিছুই মনে হয়েছিল আমাদের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে। কিন্তু আমরা ম্যাচ ছেড়ে দেইনি। দারুণ এ জয়ের কৃতিত্ব দলের সবার। আজ (রবিবার) সঠিক সময়ে সঠিক কাজটাই আমরা করতে পেরেছি, আর এতেই সাফল্য এসেছে।’ সপ্তাহের মাঝামাঝিতে চ্যাম্পিয়নস লিগের প্রথম ম্যাচে ইন্টার মিলানের বিপক্ষে ১-০ গোলের জয়ের ম্যাচটিতেও আরেক ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড রডরিগো ৮৯ মিনিটে জয়সূচক গোলটি করেছিলেন। নতুন কোচ হোসে বোরডালাসের অধীনে এবারের মৌসুমের শুরুটা ভালোভাবেই করেছিল ভ্যালেন্সিয়া। ম্যাচের শুরুতেই অধিনায়ক হোসে গায়ার ইনজুরির কারণে ছিটকে পড়ার ঘটনায় হোঁচট খায় ভ্যালেন্সিয়া। গত মৌসুমে রিয়ালের বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করা মিডফিল্ডার কার্লোস সোলার ১৫ মিনিটে ইনজুরির কারণে মাঠত্যাগে বাধ্য হলে স্বাগতিকদের সমস্যা আরও বেড়ে যায়।

২৩ মিনিটে রাইট ব্যাক থিয়েরি কোরেইরা

ও ইনজুরিতে পড়ে মাঠত্যাগ করেন। কিন্তু তার পরও নিজেদের আত্মবিশ্বাস ধরে রেখে রিয়ালের ওপর অনেকটাই চড়াও হয়ে খেলতে থাকে ভ্যালেন্সিয়া। তার ফলও পেয়ে যায় ৬৬ মিনিটে। ডুরোর ভলি আটকানোর সাধ্য ছিল না রিয়াল গোলরক্ষক থিবো কোর্তোয়ার। এক গোলে পিছিয়ে থাকা অপ্রতিরোধ্য ভ্যালেন্সিয়াকে আটকাতে রীতিমতো হিমশিম খেতে হয়েছে রিয়াল রক্ষণভাগকে। কিন্তু শেষ ১০ মিনিট রিয়াল তাদের যোগ্যতার প্রমাণ দিয়েছে। মৌসুমের পঞ্চম গোল করে ভিনি প্রথমে দলকে সমতা উপহার দেন। তার পথ অনুসরণ করে গত সপ্তাহে সেল্টা ভিগোর বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করা বেনজেমা মৌসুমের ষষ্ঠ গোল করে দলের জয় নিশ্চিত করেন। ম্যাচ শেষে ডুরো বলেছেন, ‘ম্যাচটি সত্যিই কঠিন ছিল। শুরুতে দুটি ইনজুরি আমাদের বেশ পিছিয়ে দিয়েছিল। কিন্তু তার পরও আমরা এগিয়ে যাওয়ার পথ খুঁজে পেয়ে তা কাজে লাগাই। আজকের (রবিবার) ম্যাচে অন্তত ড্র করতে না পারাটা সত্যিই হতাশাজনক।’

advertisement
advertisement