advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

কেনা শুক্রাণুতে ‘ই-বেবি’র জন্ম

আমাদের সময় ডেস্ক
২১ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০২:৫৫ এএম
advertisement

অনলাইন অ্যাপের মাধ্যমে শুক্রাণু কিনে সন্তান জন্ম দিয়ে ‘গর্বিত’ এক মায়ের গল্প শুনিয়েছে দ্য মিরর। জনপ্রিয় ব্রিটিশ ট্যাবলয়েডটি সম্প্রতি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, স্টেফেনি টেলর নামের ওই মা ও মেয়ে এখন সুস্থ আছে।

দ্বিতীয় সন্তান নিতে আগ্রহী ছিলেন স্টেফেনি। কিন্তু ৩৩ বছর বয়সী এই ব্রিটিশ নারী নতুন করে কোনো সম্পর্কে জড়াতে চাননি। সে ক্ষেত্রে তার বিকল্প উপায় ছিল কোনো গর্ভধারণ কেন্দ্রের দ্বারস্থ হওয়া। সম্পর্কে জড়াতে

না চাইলেও স্টেফেনি আবার চেয়েছেন তার সন্তান তারই মতো যেন দেখতে হয়। তাই তিনি এমন কাউকে খুঁজছিলেন, যার শারীরিক গঠন তার সঙ্গে মেলে। একই সঙ্গে স্বভাবের দিক থেকেও পরিবারমুখী মানুষ চাচ্ছিলেন তিনি। সে কারণেই বিকল্প পথ খোঁজেন স্টেফেনি।

বিষয়টি এক বন্ধুর সঙ্গে শেয়ার করার পর, তার ওই বন্ধুই স্টেফেনিকে অনলাইনে শুক্রাণু কেনার একটি অ্যাপের সন্ধান দেন। ওই অ্যাপে শুক্রাণু দিতে ইচ্ছুক ব্যক্তির পরিবার থেকে শুরু করে স্বাস্থ্যসংক্রান্ত সব তথ্যই দেওয়া থাকে। সেখান থেকেই নিজের সন্তানের জন্য শুক্রাণুদাতা খুঁজে নেন তিনি।

এখন এক কন্যাসন্তানের জন্ম দিয়েছেন এই নারী। কন্যার নাম রেখেছেন ইডেন। স্টেফেনির ঘটনা জেনে অনেকেই ইডেনের অন্য নামও রেখেছে, ‘ই-বেবি’। স্টেফেনি ও তার আগের জীবনসঙ্গীর প্রায় পাঁচ বছর বয়সী একটি ছেলেসন্তানও রয়েছে।

কেন কোনো কেন্দ্রে না গিয়ে বাড়িতেই এমন পদ্ধতিতে গর্ভধারণ করেছেন, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি দ্য মিররকে জানান, তিনি প্রথমে বিকল্প ভেবেছিলেন, যোগাযোগও করেন কয়েকটি কেন্দ্রে। কিন্তু সন্তানধারণের পুরো প্রক্রিয়া অনেক ব্যয়বহুল, সে কারণে তিনি এমন সিদ্ধান্ত নেন।

তিনি আরও জানান, অনলাইনের মাধ্যমে শুক্রাণু কিনেছেন। ইউটিউব দেখে সেই শুক্রাণু গর্ভে প্রবেশ করানোর পদ্ধতি শিখেছেন। শেষে ই-বে থেকে কিনে নেন প্রজনন প্রক্রিয়ার দরকারি জিনিসপত্র। তিনি এটাও মনে করেন যে, অনলাইনে যখন সবকিছুই হচ্ছে, তখন সন্তানধারণেই-বা সমস্যা কোথায়।

advertisement
advertisement