advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

নারীদেরকে শিক্ষার অধিকার থেকে বঞ্চিত করা অনৈসলামিক : পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক
২২ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১২:০৩ পিএম | আপডেট: ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০১:৩৫ পিএম
পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান । ছবি : রয়টার্স
advertisement

আফগানিস্তানে নারীদেরকে শিক্ষার অধিকার থেকে বঞ্চিত করা অনৈসলামিক হতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তালেবান সরকার কী কী পদক্ষেপ নিলে তারা পাকিস্তানের স্বীকৃতি পাবে সে বিষয়ে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসিকে দেওয়া এক দীর্ঘ সাক্ষাৎকারে একথা বলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী।

বিবিসিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে, সবাইকে নিয়ে কাজ করতে এবং মানবাধিকারকে সম্মান জানাতে তালেবান সরকারের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। আফগানিস্তান সন্ত্রাসীদের ঘাঁটি হিসেবে ব্যবহৃত হলে তা পাকিস্তানের নিরাপত্তাকে হুমকির মুখে ফেলতে পারে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করেন ইমরান খান।

মেয়েদেরকে স্কুলে যাওয়ার ব্যপারে তালেবানের নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে তিনি বলেন, 'মেয়েরা শিক্ষিত হতে পারবে না, এমন ধারণা স্রেফ অনৈসলামিক। এর সাথে ধর্মের কোনো সম্পর্ক নেই।' এসময় তালেবান সরকার মেয়েদের শিক্ষাগ্রহণের অনুমতি দেবে এমন আশাবাদ ব্যক্ত করেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী।

গত সপ্তায় তালেবান নেতৃত্ব স্কুল খুলে দিলেও মেয়েদেরকে স্কুলে যাওয়ার অনুমতি দেয়নি, শিক্ষকতার কাজে ফিরে যাবার অনুমতি পেয়েছেন শুধুমাত্র পুরুষ শিক্ষকেরা। মেয়েদেরকে বাদ রেখে স্কুল খোলার সিদ্ধান্ত আন্তর্জাতিক মহলে শোরগোল ফেলে দেয়। পরে তালেবান মুখপাত্র বলেন, মেয়েদেরকে যত দ্রুত সম্ভব স্কুলে ফেরানো হবে। কিন্তু এটা স্পষ্ট হয়নি, কবে নাগাদ স্কুলে ফিরতে পারবে মেয়েরা এবং তাদেরকে যদি শ্রেণিকক্ষে ফিরতে দেয়া হয় তাহলে ঠিক কী ধরনের শিক্ষার সুযোগ তারা পাবে।

গত আগস্টে তালেবান আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ নেয়ার পর থেকেই আশঙ্কা বাড়ছিল যে দেশটিতে ১৯৯০ দশকের মতো একটি রাষ্ট্রব্যবস্থা ফেরৎ আসবে, যেখানে কট্টর ইসলামপন্থীরা নারীদের অধিকারকে চূড়ান্তভাবে খর্ব করেছিল।

advertisement