advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

বয়সভিত্তিক টুর্নামেন্টে লেগ-স্পিনার বাধ্যতামূলক করতে কৌশলী বিসিবি

ক্রীড়া প্রতিবেদক
১০ অক্টোবর ২০২১ ০৪:০৯ পিএম | আপডেট: ১০ অক্টোবর ২০২১ ০৪:৩৪ পিএম
খালেদ মাহমুদ সুজন। পুরোনো ছবি
advertisement

বিশ্ব ক্রিকেটে লেগ-স্পিনার মানে হিরোর টুকরোর মতো। অথচ বাংলাদেশের ক্রিকেটে লেগ-স্পিনার শব্দটাই একটা হাহাকারের নাম। ক্রিকেটে ২০ বছরের বেশি সময় ধরে আধিপত্য ধরে রাখলেও এই জায়গায় এখনো একজন নিয়মিত বোলার তৈরি করতে পারেনি বাংলাদেশ। এর মাঝে কয়েকজনের উত্থান হলেও ঠিকভাবে পরিচর্যার অভাবে হারিয়ে গেছে। এ ছাড়াও লিগ কিংবা টুর্নামেন্টগুলোতেও তাদের এক রকম উপেক্ষিতই হতে হয়।

জাতীয় দলে লেগ স্পিনার আসতে হলে বয়সভিত্তিক টুর্নামেন্টগুলোতেই গুরুত্ব দিতে হবে সবার আগে। এর জন্য দলগুলোকে বাধ্য করা ছাড়া অন্য কোনো পথ খুঁজে পাচ্ছে না বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) ডেভেলপমেন্ট বিভাগ। ইয়ুথ ক্রিকেট লিগে (ওয়াইসিএল) লেগ স্পিনার রাখা বাধ্যতামূলক করতে নতুন নিয়মের দিকে যাওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন ডেভেলপমেন্ট বিভাগ প্রধান খালেদ মাহমুদ সুজন।

রোববার মিরপুরে বয়সভিত্তিক ক্রিকেটার তৈরি নিয়ে বিভিন্ন জেলা প্রতিনিধিদের সঙ্গে মিটিং শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এমন আভাস দেন। তিনি বলেন, ‘আমরা চিন্তা করেছি যে আমরা তো অনূর্ধ্ব-১৮তে গিয়ে ওআইসিএলটা খেলি, কিন্তু আমরা অনূর্ধ্ব-১৪ কিংবা ১৬তে এখন থেকে ২ থেকে ৩ দিনের ম্যাচগুলা খেলার চেষ্টা করব। যেটা আমরা ওআইসিএল করি সেটা আমরা অনূর্ধ্ব-১৬তে তিন দিন এবং ১৪তে দুইদিন করব।’

তিনি বলেন, ‘একটা বাধ্যবাধকতা করব আমরা, দরকার পড়লে এসব খেলা সুপারসাফ দিবো শুধু একটা লেগ স্পিনারের জন্য। যেন একটা লেগস্পিনার খেলাতে বাধ্য হয় এবং সে ২০ ওভার করবে প্রতি ইনিংসে। তা না করলে ওই টিম জিতলেও পয়েন্ট পাবে না।’

‘মানে আমি ডেভেলপমেন্টে এটাই বুঝানোর চেষ্টা করি কোচদেরকে। এটাতে দুর্বল শক্ত কিংবা কে জিতল কে হারলো তা নয়, এটা ডেভেলপিং প্লেয়ার্স। তো এটাই আমি তাদেরকে আজকেও মনে করিয়েছি এবং আমি ওটাই চাই এবং ওটাতে ইমপ্লিমেন্ট করার চেষ্টা করতেছি,’ যোগ করেন তিনি।

advertisement