advertisement
DARAZ
advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

জাল টাকার মামলায় পাপিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন

আদালত প্রতিবেদক
১৩ অক্টোবর ২০২১ ০৫:৫৮ পিএম | আপডেট: ১৩ অক্টোবর ২০২১ ০৭:০৩ পিএম
শামীমা নূর পাপিয়া। পুরোনো ছবি
advertisement

অস্ত্র মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের (বর্তমানে বহিষ্কৃত) সাধারণ সম্পাদক শামীমা নূর পাপিয়া ও তার স্বামী মো. মফিজুর রহমান ওরফে সুমন চৌধুরীসহ চারজনের বিরুদ্ধে বিদেশি টাকা জাল করার একটি মামলায় অভিযোগ গঠন করেছেন ট্রাইব্যুনাল। আজ বুধবার ঢাকার ৬ নম্বর বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক ফাতেমা ফেরদৌস আসামিদের অব্যাহতির আবেদন নাকচ করে বিশেষ ক্ষমতা আইনে এই মামলায় এ অভিযোগ গঠনের আদেশ দেন। একই সঙ্গে আগামী ২১ নভেম্বর মামলাটিতে সাক্ষ্যগ্রহণের দিন ঠিক করেছেন মর্মে জানিয়েছেন পাপিয়ার আইনজীবী শাখাওয়াত উল্ল্যাহ ভুঁইয়া।

মামলার অপর দুই আসামি হলেন, সাব্বির খন্দকার ও শেখ তায়িবা নূর। শুনানিকালে অস্ত্র আইনের মামলায় ২৭ বছর করে কারাদণ্ডপ্রাপ্ত পাপিয়া ও তার স্বামীকে কারাগার থেকে আদালতে হাজির করে করাকর্তৃপক্ষ।

এর আগে গত ২২ আগস্ট দেশি মুদ্রা জাল করার দণ্ডবিধি আইনের একটি মামলায় ঢাকা সিএমএম আদালত একই আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন। এর আগে গত বছর ১২ অক্টোবর এ দম্পতিকে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালত অস্ত্র মামলায় ২৭ বছর করে কারাদণ্ড প্রদান করেন।

২০২০ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে দুজন সঙ্গীসহ পাপিয়া এবং তার স্বামীকে আটক করে র‌্যাব-১। ওই সময় তাদের কাছ থেকে সাতটি পাসপোর্ট, দুই লাখ ১২ হাজার ২৭০ টাকা, ২৫ হাজার ৬০০ টাকার জাল নোট, ১১ হাজার ৪৮১ ডলার, শ্রীলঙ্কা ও ভারতের কিছু মুদ্রা এবং দুটি ডেবিট কার্ড জব্দ হয়। পরে পাপিয়ার ফার্মগেটের বাসার ফ্ল্যাটে অভিযান চালিয়ে সেখান থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, দুটি ম্যাগাজিন, ২০টি গুলি, পাঁচ বোতল বিদেশি মদ, ৫৮ লাখ ৪১ হাজার টাকা এবং বিভিন্ন ব্যাংকের ক্রেডিট ও ডেবিট কার্ড উদ্ধার করে র‌্যাব।

ওই ঘটনায় মাদক, অস্ত্র ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে শেরেবাংলা নগর ও বিমানবন্দর থানায় তিনটি মামলা দায়ের করা হয়। পরবর্তীতে মামলাগুলোয় দুই দফায় তাদের ৩০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর হয়। পরবর্তীতে দুদক এ দম্পত্তির বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের একটি মামলা করে। চারটি মামলার মধ্যে অস্ত্র আইনের মামলায় প্রথম রায় ঘোষণা করেছে আদালত। অভিযোগ গঠন হওয়া জাল টাকার মামলায় গত বছর ২৯ নভেম্বর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা র‌্যাব-১ এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. নাজমুল হক আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন।

advertisement