advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

স্পেনে ‘যৌন পেশা’ বন্ধের ঘোষণা

অনলাইন ডেস্ক
১৮ অক্টোবর ২০২১ ০৬:০৯ পিএম | আপডেট: ১৮ অক্টোবর ২০২১ ০৭:২৮ পিএম
স্পেনে বন্ধ হচ্ছে যৌন পেশা। প্রতীকী ছবি
advertisement

স্পেনে যৌন পেশা বিলোপের অঙ্গীকার করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো সানচেজ। গতকাল রোববার তিনি এ অঙ্গীকার করেন। বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

স্পেনের ভ্যালেনসিয়ায় সোশ্যালিস্ট পার্টির তিনদিনের কংগ্রেসের সমাপনীতে সমর্থকদের উদ্দেশে বক্তব্য দেন পেদ্রো সানচেজ। সেখানে তিনি দেশটিতে যৌন পেশা বিলোপের প্রসঙ্গ নিয়ে কথা বলেন। সানচেজ বলেন, ‘এই পেশা নারীদের দাস বানায়।’

প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো সানচেজ। সংগৃহীত ছবি

 

২০১৬ সালে জাতিসংঘের এক হিসাবে বলা হয়, স্পেনে যৌন পেশার আর্থিক মূল্য প্রায় ৭ দশমিক ৩ বিলিয়ন ইউরো। ২০০৯ সালের একটি জরিপে দেখা যায়, তিনজন স্প্যানিশ পুরুষের মধ্যে একজন যৌনতার জন্য অর্থ প্রদান করেন। তবে ২০০৯ সালে প্রকাশিত আরেকটি প্রতিবেদনে ইঙ্গিত দেওয়া হয় যে, এ সংখ্যা ৩৯ শতাংশ পর্যন্ত হতে পারে।

জাতিসংঘের ২০১১ সালের এক গবেষণায় বিশ্বে যৌন পেশার তৃতীয় বৃহত্তম কেন্দ্র হিসেবে স্পেনের নাম উঠে আসে। এ তালিকায় প্রথমে রয়েছে থাইল্যান্ড, দ্বিতীয় পুয়ের্তো রিকো। স্পেনে বর্তমানে অনেকটা অনিয়ন্ত্রিতভাবে যৌন পেশা পরিচালিত হচ্ছে। স্পেনে প্রায় তিন লাখ নারী যৌন পেশায় জড়িত বলে ধারণা করা হয়।

২০১৯ সালে পেদ্রো সানচেজের দল তাদের নির্বাচনী ইশতেহারে যৌন পেশাকে অবৈধ ঘোষণার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। অধিকসংখ্যক নারী ভোটারকে আকৃষ্ট করার লক্ষ্যে দলটি তাদের নির্বাচনী ইশতেহারে এমন প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল বলে মনে করা হয়। তবে, নির্বাচনের দুই বছর পার হলেও এখনো দেশটিতে যৌন পেশাকে বিলোপ করার ঘোষণাসংক্রান্ত কোনো আইন পার্লামেন্টে তোলা হয়নি।

advertisement
advertisement