advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

আক্ষেপ ঘুচাতে চান রাবাদা

ক্রীড়া ডেস্ক
১৯ অক্টোবর ২০২১ ১২:০০ এএম | আপডেট: ১৮ অক্টোবর ২০২১ ১০:৫৭ পিএম
advertisement

শুরু হয়ে গেছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। ফেভারিট হিসেবে প্রতিযোগিতায় বেশ কয়েকটি দল থাকলেও দক্ষিণ আফ্রিকাকে হয়তো গুনছে না কেউ। কারণ চোকার্স তকমা লেগে আছে তাদের গায়ে। এবার কি সেই বৃত্ত ভাঙতে পারবে প্রোটিয়ারা? সময়ই বলে দেবে সেটা। তবে সংযুক্ত আরব আমিরাতে চলমান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দক্ষিণ আফ্রিকা জিততে পারলে তা হবে সেরা অর্জন, বললেন কাগিসো রাবাদা। চোকার্স তকমা ঘুচিয়ে এবার শিরোপার স্বাদ নিতে চান এই তরুণ তারকা।

সংবাদমাধ্যমে এ বিষয়ে রাবাদা বলেছেন, ‘টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয় হবে নিঃসন্দেহে আমার জীবনের শ্রেষ্ঠ অর্জন। এটা দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেট ইতিহাসেও অন্যতম সেরা অর্জন হবে। যেটার অভাব প্রোটিয়ারা অনেক দিন ধরে অনুভব করছে।’ ওয়েস্ট ইন্ডিজ, শ্রীলংকা ও আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে টানা তিনটি টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয়ের সুখস্মৃতি নিয়েই এবারের বিশ্বকাপে খেলতে নামছে প্রোটিয়ারা। এ তিন সিরিজের ইতিবাচক ফল নিশ্চিতভাবেই বিশ্বকাপে প্রোটিয়াদের জন্য টনিক হিসেবে কাজ করবে। আগের ছয় টি-টায়েন্টি বিশ্বকাপে দুবার নকআউট পর্বে শেষ হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার মিশন। ২০০৯ ও ২০১৪ সালে সেমিফাইনালে আটকে গিয়েছিল প্রোটিয়ারা। অন্য চারবার নকআউট পর্বে উঠতে পারেনি প্রোটিয়ারা। দলের অতীত ইতিহাস সবই জানেন রাবাদা। তবে এসব নিয়ে ভাবতে চান না এই প্রোটিয়া পেসার, ‘আগে যা ঘটেছে, তা নিয়ে এখন কথা বলতে চাচ্ছি না। আমাদের সামনে এখন অনেক চ্যালেঞ্জ। আমরা এখানে জিততেই এসেছি। অতীত নিয়ে আলোচনা না করে এখন শুধু পারফরম্যান্স দেখানোর সময়।’

তবে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার অনুভূতি কেমন, তা রাবাদা ভালো করেই জানেন। ২০১৪ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকার শিরোপাজয়ী দলের এই সদস্য বলেছেন, ‘এটা আসলেই অন্যরকম এক অনুভূতি। জাতীয় দলের হয়ে তেমন কিছুর পুনরাবৃত্তি হলে ভালোই লাগবে।’

advertisement
advertisement