advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতি
রাজনৈতিক সুবিধা হাসিলের হামলায় স্বার্থান্বেষী মহল

কূটনৈতিক প্রতিবেদক
২০ অক্টোবর ২০২১ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২০ অক্টোবর ২০২১ ০২:০২ এএম
advertisement

রাজনৈতিক সুবিধা হাসিলের জন্য একটি স্বার্থান্বেষী মহল সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ওপর হামলা করেছে বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। জাতিসংঘ ও বিভিন্ন আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠনের উদ্বেগের প্রেক্ষাপটে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গতকাল মঙ্গলবার এ বিবৃতি দেয়।

বিবৃতিতে অভিযোগ তোলার পাশাপাশি সরকারের তৎপরতা জানিয়ে বলা হয়, সন্দেহজনক রাজনৈতিক সুবিধা হাসিলের জন্য নির্দিষ্ট স্বার্থান্বেষী গোষ্ঠীর পূর্বপরিকল্পিত এসব আক্রমণের ব্যাপারে সরকার সজাগ রয়েছে। এটা দুঃখজনক, স্থানীয় যে গোষ্ঠী ৫০ বছর আগে বাংলাদেশের স্বাধীনতার বিরোধিতা করেছিল, তারা এখনো সহিংসতা, ঘৃণা ও বিদ্বেষ ছড়ানোর জন্য অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে। তারা একটি ধর্মের সবচেয়ে বড় উৎসবে অনবরত হামলা চালিয়ে আন্তর্জাতিক পরিম-লে বাংলাদেশের ধর্মনিরপেক্ষ, অসাম্প্রদায়িক ও বহুত্ববাদী অবস্থানকে হেয় করার চেষ্টা চালাচ্ছে।

এতে আরও বলা হয়, বাংলাদেশ সরকার এসব ঘটনার সুস্পষ্ট নিন্দা জানিয়েছে এবং হিন্দু সম্প্রদায়ের ভেতরে-বাইরের

প্রতিক্রিয়া গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনায় নিচ্ছে। বিভিন্ন জেলায় সাম্প্রদায়িক হামলার এসব ঘটনায় ৭১টি মামলা হয়েছে এবং ৪৫০ জনকে আটক করা হয়েছে। যুগ যুগ ধরে বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মানুষের একসঙ্গে বসবাসের বিষয়টি তুলে ধরে মন্ত্রণালয় বলেছে, সরকার সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখায় সচেষ্ট। এ ধরনের অপ্রত্যাশিত ঘটনা এড়াতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। গণমাধ্যমের দায়িত্বশীল ও বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশের মাধ্যমে পরবর্তী জটিলতা ও ভুল বোঝাবুঝি দূর করা সম্ভব হবে বলে আশা করছে সরকার।

গত সোমবার এক বিবৃতিতে সাম্প্রদায়িক হামলা বন্ধ এবং অপরাধীদের খুঁজে বের করতে নিরপেক্ষ তদন্তের আহ্বান জানান ঢাকায় জাতিসংঘের আবাসিক প্রতিনিধি মিয়া সেপ্পো। অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালও উদ্বেগ প্রকাশ করে।

advertisement
advertisement