advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

বার্সেলোনায় স্বামীকে চেতনানাশক ওষুধ খাইয়ে প্রেমিকের সঙ্গে পালিয়েছে স্ত্রী

স্পেন প্রতিনিধি
২০ অক্টোবর ২০২১ ০২:৫৯ পিএম | আপডেট: ২০ অক্টোবর ২০২১ ০৩:১৪ পিএম
সংবাদ সম্মেলনে প্রবাসী মিনহাজ । ছবি : আমাদের সময়
advertisement

স্ত্রীর বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ এনেছেন স্পেনের বার্সেলোনায় বসবাসরত এক প্রবাসী বাংলাদেশি। প্রবাসী মিনহাজুল ইসলাম মুক্তা (৩১) তার স্ত্রী মুনিরা খানম মুন্নীর (২৫) বিরুদ্ধে ভয়াবহ প্রতারণার অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করেছেন।

ভুক্তভোগী মিনহাজ বিয়ানীবাজার থানার কুড়ার বাজার ইউনিয়নের আঙ্গুরা মোহাম্মদপুর গ্রামের নজরুল ইলামের ছেলে। গত সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ পেশ করেন।

এ সময় তিনি উল্লেখ করেন, চলতি বছরের ১০ অক্টোবর ফ্যামিলি ভিসার মাধ্যমে স্ত্রী মুন্নী এবং ২ বছরের শিশু সন্তান আয়ানকে স্পেনের বার্সেলোনায় নিজের কাছে নিয়ে আসেন মিনহাজ। তার স্ত্রী বার্সেলোনায় আসার রাতেই দুইগ্লাস শরবত বানিয়ে একটিতে চেতনানাশক ওষুধ মিশিয়ে দেন। চেতনানাশক মেশানো শরবত মিনহাজকে দিয়ে নিজে ভালো শরবত পান করে। তিনি অভিযোগ করেন, ওই শরবত খেয়ে তিনি অচেতন হয়ে পড়লে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী তার স্ত্রী একমাত্র ছেলে এবং দেশ থেকে নিয়ে আসা স্বর্ণালঙ্কার, নগদ অর্থসহ মূল্যবান জিনিসপত্র নিয়ে রাত ২টায় পালিয়ে যায়। মিনহাজের ধারণা, মুন্নী তার সাথে প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে যে ছেলের সঙ্গে পালিয়ে গেছে সে ফ্রান্স প্রবাসী বিয়ানীবাজারের বাসিন্দা। 

তিনি মুনিরা খানম মুন্নীকে ভয়ংকর প্রতারক হিসেবে উল্লেখ করে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেন, এ সমস্যা পারিবারিকভাবে নিস্পত্তির জন্য তিনি তার শ্বশুর বিয়ানীবাজারের খাসা শহীদ টিলার অধিবাসী ইকবাল খানের দ্বারস্থ হওয়ার পরও কোনো সুষ্ঠু সমাধান পাননি। আর এ জন্যে তিনি এই সংবাদ সম্মেলনে কমিউনিটি নেতৃবৃন্দের শরণাপন্ন হয়ে এই প্রতারক নারীকে প্রবাসে সামাজিকভাবে বয়কটের অনুরোধ জানান।

এ সময় তিনি আরও বলেন, বিয়ে থেকে শুরু করে, বিগত দিনের যাবতীয় ভরনপোষণ, ভিসা প্রোসেসিং থেকে এ পর্যন্ত প্রায় ৪০ হাজার ইউরো (বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৪০ লাখ টাকা) খরচ করেছেন এবং এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার জন্য স্থানীয় থানায় অভিযোগসহ আইনী প্রক্রিয়া শুরু করেছেন । এ ছাড়া তার ২ বছরের ছেলে সন্তান আয়ানকে তার কাছে ফিরিয়ে আনতে তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

এ সময় সংবাদ সম্মেলনে স্থানীয় সাংবাদিকবৃন্দ, মিনহাজের পারিবারের সদস্য ও কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

advertisement
advertisement