advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

ই-কমার্স ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করবে ডিজিটাল ম্যানেজমেন্ট সেল

আবু আলী
২৫ নভেম্বর ২০২১ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২৫ নভেম্বর ২০২১ ০৮:১৯ এএম
প্রতীকী ছবি
advertisement

দেশের ই-কমার্স খাতে শৃঙ্খলা ফেরাতে বেশ কিছু সুপারিশ দিয়েছে উচ্চপর্যায়ের সরকারি কমিটি। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে জমা দেওয়া প্রতিবেদনে ডিজিটাল কমার্স ম্যানেজমেন্ট সেল করার ওপর জোর দেওয়া হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে প্রতিষ্ঠানের নিবন্ধন গ্রহণের প্রক্রিয়া, লাইসেন্স প্রাপ্তির পদ্ধতি ও যোগ্যতা, সব কোম্পানিকে একই প্লাটফরমে নিয়ে আসা, আর্থিক লেনদেনের পদ্ধতি, মূল্য সংযোজন কর ও আয়করের আওতায় আনতে হবে। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অনুমোদন সাপেক্ষে শিগগিরই গঠন করা হবে এ সেল। সারাদেশের ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানকে নিয়ন্ত্রণ ও মনিটরিং করবে এই সেল। এতে গ্রাহক হয়রানি নিয়ন্ত্রণ ও ই-কমার্স খাতকে আইনি কাঠামোর মধ্যে নিয়ে আসা সম্ভব হবে। খবর সংশ্লিষ্ট সূত্রের।

জানা গেছে, ই-কমার্স খাতের নিবন্ধনসহ যাবতীয় সেবা নিশ্চিত করবে ডিজিটাল কমার্স ম্যানেজমেন্ট সেল। সম্প্রতি ই-কমার্স নিয়ে কাজের চাপ বেড়ে যাওয়ায় এ সংক্রান্ত গঠিত দুটি কমিটি বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের আমদানি ও অভ্যন্তরীণ বাণিজ্য (আইআইটি) বিভাগের অধীনে কাজ করছে। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে জমা দেওয়া প্রতিবেদনে বলা হয়েছে ই-কমার্স খাত সঠিকভাবে পরিচালনা ও দেখভালে পৃথক সেল অপরিহার্য হয়ে পড়ছে। বিশেষ করে এ খাতের নিবন্ধন এবং ভোক্তা অধিকার সুরক্ষায় ডিজিটাল কমার্স ম্যানেজমেন্ট সেল হওয়া উচিত। যারা ই-কমার্স খাতের নিবন্ধনসহ ভোক্তার অভিযোগগুলো আমলে নিয়ে দ্রুত কার্যকর পদক্ষেপ নিতে পারবে।

এ ছাড়া মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের পরবর্তী নির্দেশনার জন্য অপেক্ষা করছে এ সংক্রান্ত গঠিত দুটি উচ্চপর্যায়ের কমিটি। কমিটি আশা করছে, এ ব্যাপারে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে দিকনির্দেশনা দেওয়া হবে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের শীর্ষ এক কর্মকর্তা আমাদের সময়কে বলেন, ই-কমার্স খাতের জন্য পৃথক ডিজিটাল কমার্স ম্যানেজমেন্ট সেল করার জন্য বলা হয়েছে। আশা করছি, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের পর্যবেক্ষণে বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে নেওয়া হবে।

দেশের ই-কমার্স খাত পরিচালনা-সংক্রান্ত বিষয়ে আগামী মন্ত্রিসভা বৈঠকে একটি ঘোষণা দেওয়া হতে পারে। এ লক্ষ্যে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে কমিটির উত্থাপিত প্রতিবেদন গভীরভাবে পর্যালোচনা করা হচ্ছে। এর আগের বৈঠকে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে বলা হয় নিবন্ধনের বাইরে কারও ই-কমার্স ব্যবসা করার সুযোগ নেই। এ কারণে এ খাত পরিচালনা-সংক্রান্ত সুপারিশ পাওয়ার পর পরবর্তী করণীয় নির্ধারণ করা হবে।

advertisement
advertisement