advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

বড় বোনের স্বামীর সঙ্গে পরকীয়া করে বিয়ে, স্ত্রীর ‘আত্মহত্যা’

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি
২৫ নভেম্বর ২০২১ ০৯:১৪ পিএম | আপডেট: ২৫ নভেম্বর ২০২১ ০৯:৪৬ পিএম
প্রতীকী ছবি
advertisement

যশোরের চৌগাছায় আগাছানাশক খেয়ে এক কিশোরী আত্মহত্যা করেছে বলে দাবি করেছে তার পরিবার। গত ১৭ নভেম্বর আগাছানাশক খেয়ে আত্মহত্যা চেষ্টার পর গতকাল বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, ওই কিশোরী নিজের গার্মেন্টস কর্মী বড় বোন ও বোন জামাইয়ের সঙ্গে ঢাকায় থাকত। সেখানে বোন জামাইয়ের সঙ্গে পরকীয়ার এক পর্যায়ে তাকে বিয়ে করেন বোন জামাই। এ নিয়ে তাদের মধ্যে পারিবারিক কলহ চলছিল। কলহের জেরে সে আগাছানাশক খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন স্বজন জানান, মেয়েটির বড় বোনের বিয়ে হয়েছে দিনাজপুরে। তারা স্বামী-স্ত্রী ঢাকায় একটি গার্মেন্টসে চাকরি করেন। তাদের দুই ছেলেমেয়ে দেখাশুনার জন্য মেয়েটি বোনের বাসায় থাকত। সেখানে থাকার সুবাদে বোন জামাইয়ে সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কের এক পর্যায়ে দুজন সবার অগোচরে বিয়ে করেন। পরে বিষয়টি ফাঁস হয়ে গেলে দুই বোনের মাঝে ঝগড়া-বিবাদ হয়। এক পর্যায়ে ওই কিশোরী (ছোট বোন) বাবার বাড়িতে চলে আসে। সেখানে বিষয়টি নিয়ে মা-বাবার সঙ্গেও তার মনোমালিন্য হয়। এতে অভিমান করে গত ১৭ নভেম্বর বাবার বাড়িতেই আগাছানাশক খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে সে।

বিষয়টি বুঝতে পেরে পরিবারের সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসার পর অবস্থার অবনতি হলে যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে স্থানান্তর করেন চিকিৎসক। হাসপাতালে ভর্তি থেকে চিকিৎসার পর ২২ নভেম্বর তাকে বাড়িতে নিয়ে আসে পরিবার। কিন্তু গতকাল বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে অবস্থার অবনতি হয়ে বাড়িতেই তার মৃত্যু হয়।

এ বিষয়ে চৌগাছা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আতিকুর রহমান বলেন, বিষয়টি জানতে পেরে ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে সুরাহতল প্রতিবেদন শেষে সেটি ময়নাতদন্তের জন্য যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বোন জামাইয়ের সঙ্গে বিয়ের বিষয়টি শুনেছেন বলেও জানান তিনি। চৌগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম সবুজ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

advertisement
advertisement