advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement

৫.৮ মাত্রার ভূমিকম্পে কাঁপল দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
২৭ নভেম্বর ২০২১ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২৭ নভেম্বর ২০২১ ০২:৩৮ এএম
advertisement

৫.৮ মাত্রার ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে। এ ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল ছিল ভারত সীমান্তসংলগ্ন মিয়ানমারের চীন রাজ্যের রাজধানী হাখা শহরের ১৯.৫ কিলোমিটার উত্তর-উত্তর পশ্চিমে। কেন্দ্র ছিল ভূপৃষ্ঠ থেকে ৩২.৮ কিলোমিটার গভীরে। যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা (ইউএসজিএস) বলছে, বাংলাদেশ সময় শুক্রবার ভোর ৫টা ৪৫ মিনিটে এই ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল রিখটার স্কেলে ৬ দশমিক ১। তবে অনুভূত মাত্রা ছিল ৫.৮।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের ভূকম্পন পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রের কর্মকর্তা মমিনুল ইসলাম জানান, এ ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল

ছিল ঢাকা থেকে ৩৩৮ কিলোমিটার পূর্ব-দক্ষিণ পূর্বে। ভারতের মিজোরামের সাইহা থেকে ওই এলাকার দূরত্ব ৬৩ কিলোমিটারের মতো। চট্টগ্রাম বিভাগের পাশাপাশি ঢাকা, বরিশাল, খুলনা, রাজশাহী ও রংপুর বিভাগেও এ ভূকম্পন অনুভূত হয়েছে। তবে ক্ষয়ক্ষতির তেমন কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। ভূমিকম্পে রাঙামাটি শহরের ঝুল্লিক্যা পাহাড়ের নির্মাণাধীন সংযোগ সেতুর জোড়ায় এবং একটি মসজিদের বিভিন্ন স্থানে ফাটল দেখা দিয়েছে বলে জানা গেছে।

স্থানীয়রা জানান, ফজরের নামাজের সময় হঠাৎ মসজিদটি কেঁপে ওঠে। পরে তারা মসজিদের দেয়ালের বিভিন্ন স্থানে ফাটল দেখতে পান। একই সঙ্গে শহরের পুরানপাড়া ও ঝুল্লিক্যা পাহাড়ের ওয়াই আকৃতির নির্মাণাধীন সেতুর দুই গার্ডারের সংযোগস্থলে হালকা ফাটল দেখা গেছে।

ভোররাতে বেশ কয়েক সেকেন্ড স্থায়ী এ ভূমিকম্পে ঢাকার উঁচু ভবনগুলো দুলে উঠলে অনেকেই ঘুম ভেঙে আতঙ্কিত হয়ে ওঠেন। সেই অভিজ্ঞতার কথা অনেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় জানিয়েছেন। কেউ কেউ ঘরের জিনিসপত্র কাঁপতে থাকার ভিডিও শেয়ার করেছেন। ভারতের পশ্চিমবঙ্গ, ভুটান ও চীনের কিছু এলাকা থেকেও কম্পন অনুভূত হয়েছে বলে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলো খবর দিয়েছে।

ভূকম্পন পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রের কর্মকর্তা মমিনুল ইসলাম বলেন, মিয়ানমারের প্লেট বাউন্ডারি লাইনে একটি মাইক্রোপ্লেটের কাছাকাছি বার্মা ‘সেগিং ফল্টে’ এ ভূমিকম্প হয়েছে। ওই অঞ্চল বেশ ভূমিকম্পপ্রবণ। কিছুদিন আগেও এ জায়গায় ভূমিকম্প হয়েছিল। এ ফল্ট লাইনে বড় ভূমিকম্পের শঙ্কা রয়েছে।

আতঙ্কে লাফিয়ে পড়ে আহত চবি শিক্ষার্থী

চবি প্রতিনিধি জানান, ভূমিকম্পের সময় আতঙ্কিত হয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) আবাসিক হলের দ্বিতীয়তলা থেকে লাফ দিয়ে আহত হয়েছেন এক শিক্ষার্থী। গতকাল ভোরে চবির আলাওল হলে এ ঘটনা ঘটে। আহত শিক্ষার্থী হোসাইন আহমেদ রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগের ১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র। তিনি আমাদের সময়কে জানান, হলের ২০২নং কক্ষে ঘুমিয়েছিলেন। হঠাৎ চেঁচামেচি শুনে তার ঘুম ভেঙে যায়। রুমের দেয়াল, টেবিল নড়তে থাকায় বুঝতে পারেন ভূমিকম্প হচ্ছে। এতে ভয় পেয়ে যান। তিনি বলেন, এমনিতেই আলাওল হল ঝুঁকিপূর্ণ। বিভিন্ন জায়গায় ফাটল ধরেছে। দীর্ঘ সময় ভূমিকম্প অনুভূত হওয়ায় হলের দ্বিতীয়তলা থেকে নিচে লাফ দেন তিনি। এতে কোমরে ব্যাথা পান। পরে চবি মেডিক্যাল সেন্টারে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে রুমে চলে আসেন। এখনো তার কোমরে ব্যথা অনুভূত হচ্ছে।

চবির চিফ মেডিক্যাল অফিসার ডা. আবু তৈয়ব বলেন, কোমরে ব্যথা পেয়ে এক শিক্ষার্থী এসেছিলেন। তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি এক্স-রে করে দেখতে বলা হয়েছে।