advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement

সিরিজ জয়ে চোখ দ. আফ্রিকার

ক্রীড়া ডেস্ক
১৯ জানুয়ারি ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ১৮ জানুয়ারি ২০২২ ১১:৫৫ পিএম
advertisement

টেস্টের পর এবার ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজও জিততে চায় স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা। পিছিয়ে পড়েও ২-১ ব্যবধানে টেস্ট সিরিজ জেতে প্রোটিয়ারা। এবার ওয়ানডেতে নতুন রূপের ভারতের বিপক্ষেও সিরিজ জিততে মরিয়া দক্ষিণ আফ্রিকা। অন্য দিকে টেস্ট সিরিজ হারের বদলা নেওয়ার লক্ষ্য ভারতের। এমন লক্ষ্য নিয়ে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজে আজ পার্লে প্রথমটিতে মুখোমুখি হচ্ছে ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকা।

বিরাট কোহলির পরিবর্তে ভারতের টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডের অধিনায়কত্ব পান রোহিত শর্মা। ইনজুরির কারণে দক্ষিণ আফ্রিকার সফরে আসেননি রোহিত। তার পরিবর্তে এবারের ওয়ানডে সিরিজে ভারতকে নেতৃত্ব দেবেন লোকেশ রাহুল। আর গত নভেম্বরে পাকাপাকিভাবে দলের কোচ হন রাহুল দ্রাবিড়। দক্ষিণ আফ্রিকায় টেস্ট সিরিজ দিয়ে কোচ হিসেবে নিজের পথচলা শুরু করেন দ্রাবিড়। শেষ পর্যন্ত সিরিজটি হেরেছে ভারত। এবার ওয়ানডে পরীক্ষায় দ্রাবিড়। এর আগে গত বছরের জুলাইয়ে শ্রীলংকা সফরে তিন ম্যাচের ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজে ভারতের ভারপ্রাপ্ত কোচ ছিলেন দ্রাবিড়।

ঐ সফরে দ্বিতীয় সারির দল নিয়ে ওয়ানডে সিরিজ জিতলেও, টি-টোয়েন্টিতে হার মানে দ্রাবিড়ের দল। তাই পাকাপাকি কোচ হিসেবে এবার ওয়ানডে লড়াইয়ে ভারতের সাবেক অধিনায়ক দ্রাবিড়।

তাই অধিনায়ক রাহুল ও কোচ দ্রাবিড়ের অধীনে নতুন রূপের এক ভারতীয় দল । নতুন রূপের হলেও শক্তির বিচারে অনেক এগিয়ে টিম ইন্ডিয়া। অধিনায়কের গুরুদায়িত্ব ছেড়ে দিলেও দলে থাকছেন কোহলি। আছেন শিখর ধাওয়ান-বুমরাহ-সামিদের মতো অভিজ্ঞরা। সঙ্গে তরুণদের সংমিশ্রণে শক্তিশালী এক দল ভারত। এই দল নিয়ে ওয়ানডে সিরিজে ভালো করতে চান দ্রাবিড়। তিনি বলেন, ‘অভিজ্ঞতা ও তারুণ্যর সংমিশ্রণে ওয়ানডে দলটি দারুণ ভারসাম্যপূর্ণ। টেস্ট সিরিজের স্মৃতি এখন অতীত। আমরা নতুনভাবে পথচলা শুরু করছি। আমাদের লক্ষ্য সিরিজ জয়। তবে সিরিজের শুরুটা ভালোভাবে করতে হবে।’

সর্বশেষ দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের স্মৃতি ভারতকে উজ্জীবিত করতে পারে। ২০১৮ সালে ছয় ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ ৫-১ ব্যবধানে জিতেছিল ভারত। দলের নেতৃত্বে ছিলেন কোহলি। ঐ সিরিজে ৫৫৮ রান করে সেরা খেলোয়াড়ও হয়েছিলেন কোহলি। এবারও কোহলির ব্যাটের দিকে চেয়ে থাকবে ভারত। তবে ২০১৯ সালের আগস্ট থেকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সেঞ্চুরিবিহীন আছেন কোহলি।

অন্য দিকে ভারতের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ জিতে দারুণ আত্মবিশ^াসী দক্ষিণ আফ্রিকা। প্রথম টেস্ট হারলেও দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট জিতে নেয় প্রোটিয়ারা। ওয়ানডে সিরিজেও ভারতকে পরাভূত করতে মরিয়া দক্ষিণ আফ্রিকা। ঘরের মাঠে সর্বশেষ সিরিজ হারের স্মৃতিতে বিচলিত নয় দক্ষিণ আফ্রিকা। এবারের সিরিজে ভারতকে উড়িয়ে দেওয়ার হুঙ্কার প্রোটিয়া সহ-অধিনায়ক কেশব মহারাজের। তিনি বলেন, ‘ওয়ানডেতে ভারত শক্তিশালী দল। তাদেরকে হারানো সহজ কাজ হবে না। তবে নিজেদের সামর্থ্যরে সেরাটা দিতে পারলে জয় অসম্ভব কিছু না।’ বিশ^কাপ সুপার লিগে এখন পর্যন্ত তিনটি সিরিজ খেলেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। একটিতেও জিততে পারেনি। ঘরের মাঠে পাকিস্তানের কাছে তিন ম্যাচের সিরিজ ২-১ ব্যবধানে হার আর আয়ারল্যান্ডের সঙ্গে ১-১ সমতায় শেষ করে। আর শ্রীলংকা সফরে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ হারে। বিশ^কাপ সুপার লিগে প্রথম সিরিজ জয়ের সন্ধানে দক্ষিণ আফ্রিকা।

২০২৩ বিশ^কাপে সরাসরি খেলতে হলে সুপার লিগের পয়েন্ট টেবিলে শীর্ষ আটে থাকতে হবে দলগুলোকে। এখন পর্যন্ত ১০ ম্যাচে ৩ জয়, ৫ হারে ৪০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের নবম স্থানে দক্ষিণ আফ্রিকা। অন্য ২টি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়। আর ৯ ম্যাচে ৫ জয়, ৪ হারে ৪৯ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের সপ্তম স্থানে ভারত। তবে স্বাগতিক হওয়ার সুবাদে পরের বিশ^কাপে সরাসরি খেলবে টিম ইন্ডিয়া। এখন পর্যন্ত ওয়ানডেতে ৮৪ ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকা। দক্ষিণ আফ্রিকা ৪৬টি ও ভারত ৩৫টিতে জয় পায়। ৩টি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়।