advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

নাগরিক সমাজের বিবৃতি
রেলওয়ে বেনিয়াগোষ্ঠীর স্বার্থরক্ষা করতে চাইছে

চট্টগ্রাম ব্যুরো
১৯ জানুয়ারি ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ১৯ জানুয়ারি ২০২২ ০২:০৬ এএম
advertisement

শতবর্ষী গাছ ও প্রাকৃতিক সম্পদ ধ্বংস করে বেসরকারি হাসপাতাল নির্মাণের অপচেষ্টার পাশাপাশি এখন সিআরবির তিনটি প্রবেশ পথে গেট নির্মাণ করে সিআরবি এলাকায় সকল যানবাহন ও সর্বসাধারণের চলাচল বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু করেছে রেলওয়ে। রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের এমন ঔদ্ধত্যপূর্ণ কর্মকা- ব্রিটিশ সাম্রাজ্যবাদী উপনিবেশিক শাসনের শামিল। চট্টগ্রামবাসীর টুঁটি চেপে ধরে রেলওয়ে বেনিয়া গোষ্ঠীর স্বার্থ রক্ষা করতে চাইছে। যা চট্টগ্রামবাসী মেনে নেবে না।

গতকাল মঙ্গলবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে সিআরবি রক্ষায় আন্দোলনকারী সংগঠন নাগরিক সমাজ, চট্টগ্রামের নেতারা এ হুশিয়ারি দেন।

বিবৃতিতে বলা হয়, নগরবাসীর শ্বাস নেওয়ার অন্যতম প্রাকৃতিক উন্মুক্ত স্থান সিআরবি এলাকাটি হেরিটেজ ঘোষিত স্থান। চট্টগ্রামের ফুসফুস খ্যাত সিআরবি নগরবাসীর বিনোদনের অন্যতম

প্রধান স্থানও। এখানে উন্মুক্ত মঞ্চে বাঙালির পহেলা বৈশাখ থেকে শুরু করে বছরজুড়ে কোনো না কোনো সাংস্কৃতিক কর্মকা- অনুষ্ঠিত হয়। সিআরবিতে বেসরকারি হাসপাতাল নির্মাণ চেষ্টার বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছেন চট্টগ্রামের সংস্কৃতিসেবী, পরিবেশবিদ থেকে শুরু করে রাজনীতিবিদ ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা। চট্টগ্রামবাসীর মতামতকে উপেক্ষা করে রেলওয়ের এ ধরনের কর্মকা-ে সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণœ করছে। এমন জনপ্রিয় উন্মুক্ত স্থানে সর্বসাধারণের প্রবেশাধিকার সংকুচিত করে অবরুদ্ধ করার এই ষড়যন্ত্র চট্টগ্রামবাসীর কোনোভাবেই মেনে নেবে না।

সেনাবাহিনীর নিয়ন্ত্রণাধীন ক্যান্টনমেন্ট এলাকার সড়কও সাধারণ মানুষ ব্যবহার করে। সিআরবি এলাকা কোনো ক্যান্টনমেন্টও নয়। নগরবাসীর সাংস্কৃতিক ও বিনোদনের এমন একটি স্থানে সাধারণ মানুষের প্রবেশাধিকার সীমিত করার অপচেষ্টা সাধারণ মানুষের ‘টুঁটি চেপে ধরা’র শামিল। সিআরবি ধ্বংস করে হাসপাতাল নির্মাণ বন্ধের গণআন্দোলনকে বিভিন্ন প্রলোভন ও মামলার ভয় দেখিয়েও যখন থামিয়ে দিয়ে ব্যর্থ হয়েছে তখন রেলওয়ের দুর্নীতিগ্রস্ত একশ্রেণির অসাধু কর্মকর্তারা এই গেট নির্মাণের অপচেষ্টা করছে।

গত ১৭ জানুয়ারি রাতে সিআরবি রক্ষায় আন্দোলনকারী সংগঠন নাগরিক সমাজ, চট্টগ্রামের এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। নাগরিক সমাজের কো-চেয়ারম্যান, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন, সাবেক ছাত্রনেতা শাহজাহান চৌধুরী, নারী নেত্রী হাসিনা আক্তার টুনু, সংস্কৃতি সংগঠক আবৃত্তিকার প্রনব চৌধুরী, সাংবাদিক ঋত্বিক নয়ন, প্রীতম দাশ, দিলরুবা খানম, চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মাহমুদুল করিম, মানবাধিকার কর্মী মোরশেদ আলম, সৈয়দ নাফিজ উদ্দিন, জাইদিদ মাহমুদ, মো. শাহজাহান সাজু প্রমুখ।